বৈকারীর গৃহবধূ ফতেমা হত্যার বাদীকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ


প্রকাশিত : এপ্রিল ১২, ২০১২ ||

আলিপুর প্রতিনিধি : দেখতে দেখতে প্রায় অর্ধমাস পার হয়ে গেলেও বৈকারী গ্রামের চাঞ্চল্যকর গৃহবুধূ ফতেমা হত্যার ৩ আসামিকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। এদিকে ফতেমার পরিবারকে অর্থের লোভ দেখিয়ে হত্যা মামলায় আটক আসামিদের উপর থেকে দোষারোপ তুলে নিতে নানাবিধ হুমকি অব্যাহত রেখেছে আসামি পক্ষের একটি মহল।

উল্লেখ্য, গত ২৮ ফেব্র“য়ারি মঙ্গলবার স্বামী মোমিনুর রহমান মোমিনসহ শ্বশুরবাড়ির ৫ জনের হাতে নিমর্মভাবে হত্যার স্বীকার হয় গৃহবধূ ফতেমা। সে সদর উপজেলার আলিপুর গ্রামের আকরম আলীর কন্যা। দরিদ্র পিতা অতিকষ্টে ছেলেদের চাহিদা অনুযায়ী সম পরিমান যৌতুক দিয়ে মেয়ের সুখের জন্য বিয়ে দেয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে স্বামীর পরিবার থেকে ফতেমাকে আবারও বাপের বাড়ি থেকে অর্থ নিয়ে আসতে বলে। যা ফতেমার গরীব পিতার পক্ষে অসম্ভব ছিল। তারপরও আকরম আলী মেয়ের শশুর বাড়ির সকল চাহিদা মিটানোর চেষ্টা করে আসছিল। এতকিছুর পরও ফতেমার শশুরবাড়ির চাহিদা পূরণ হয়নি। আর তাই শ্বশুর বাড়ির লোকজনের হাতে নিমর্মভাবে হত্যা হয় ফতেমা ওরফে কাজল। পরে বিষয়টি আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার জন্য ব্যাপক প্রচেষ্টা চালানো হলেও পরে হত্যার বিষয়টি সুস্পষ্ট হয়ে যায়। কাজলের পরিবারসহ সচেতন মহলের দাবি পলাতক আসামিদের আটক করে মামলার বিচারকার্য দ্রুত সম্পন্ন করা হোক।