ভোমরা বন্দরে ৩ হাজার ফাইল গায়েবের ঘটনায় তোলপাড়: সিএণ্ডএফ এসোসিয়েশনের তিন কর্মকর্তাকে সিআইসেলের তলব


প্রকাশিত : জুলাই ১৫, ২০১২ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি : ভোমরা স্থল বন্দরের কাস্টমস অফিস থেকে ইতোপূর্বে আমদানিকৃত পণ্যের ৩ হাজার বিল অব এণ্ট্রির ফাইল গায়েব হওয়ার ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। সংবাদ প্রকাশের পর ঘটনার বিষয় অবহিত ও খতিয়ে দেখতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের গোয়েন্দা সংস্থা (সিআইসেল) সেণ্ট্রাল ইনটেলিজেন্টস সেল এর কর্মকর্তারা ভোমরা বন্দরের সিএণ্ডএফ এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ কয়েকজনকে ঢাকায় তলব করেছেন। একই সঙ্গে বন্দরের সাবেক এক রাজস্ব কর্মকর্তারও নাম রয়েছে ওই তালিকায়। সিএণ্ডএফ এসোসিয়েশনের নেতারা ঢাকার উদ্দেশ্যে গতকাল সকালে সাতক্ষীরা ত্যাগ করেন বলে বন্দরের দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, বিগত ২০১১ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের ফেব্র“য়ারি পর্যন্ত আমদানিকৃত পণ্যের ৩ হাজার বিল অব এণ্ট্রির ফাইল গায়েব করা হয়। বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা গত মাসের ২১ জুন ১৪ জন সিএণ্ডএফ ব্যবসায়ীকে গায়েব হওয়া ওই ফাইলের যাবতীয় কাগজপত্র জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এতে সময় দেওয়া হয় মাত্র ৩দিন। নির্ধারিত সময়ে বেশির ভাগ ব্যবসায়ীরা কাগজপত্র জমা দিতে পারেনি, আবার অনেক ব্যবসায়ী কাগজপত্র জমা দেইনি। এর আগে মৌখিকভাবে বন্দরের চলতি দায়িত্বের রাজস্ব কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হক এসমস্ত বিল অব এণ্ট্রির ফাইল বার বার জমা দিতে পরামর্শ দেন ব্যবসায়ীদের। এঘটনায় বন্দরের ব্যবসায়ীরা বেশ আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। কাস্টমসের খসড়া তালিকায় ৪০ জনের নাম থাকলেও নোটিশ দেওয়া হয়েছে মাত্র ১৪ জন ব্যবসায়ীকে। এখানে নোটিশ দেওয়া নিয়েও বন্দর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে লাখ লাখ টাকার দফা রফার অভিযোগ উঠে। সূত্রানুযায়ী ভোমরা বন্দর থেকে গায়েব হওয়া বিল অব এণ্ট্রির ফাইলে ৮০% ফল আমদানির কাগজপত্র রয়েছে। এতে করে সরকার কমপক্ষে ৯০ কোটি টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়। এসমস্ত ঘটনায় সংবাদ প্রকাশ হলে টনক নড়েছে জাতীয় রাজস্ব বোড কর্তৃপক্ষের।

বন্দরের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, উক্ত ফাইল গায়েবসহ নানাবিধ অভিযোগ এর ঘটনায় বন্দরের সিএণ্ডএফ এসোসিয়েশন সভাপতি সেজুতি এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী নেছার উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মেসার্স ফরহাদ ইন্টারন্যাশনালের স্বত্তাধিকারী অহিদুল ইসলাম ও মেসার্স আল্লার দান এর স্বত্তাধিকারী আরাফাত হোসেনকে তলব করেছে কাস্টমসের সর্বোচ্চ গোয়েন্দা সংস্থা সিআইসেল কর্মকর্তারা। আজ সকাল ১০টায় ওই ৩ জনকে সিআইসেলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে সূত্র জানায়। একই সঙ্গে বন্দরের সাবেক এক কর্মকর্তা কে ওই বোর্ডে হাজির থাকতে বলা হয়েছে।