খুলনা মহানগর আ.লীগের বর্ধিত সভা


প্রকাশিত : জুলাই ১৭, ২০১২ ||

খুলনায় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতসহ ১৮ দলীয় জোট যুদ্ধাপরাধীদের এবং খালেদা জিয়ার দুই ছেলে তারেক-কোকোকে বাঁচানো লক্ষ্যে দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তারা দেশের স্বার্থ ভূলুন্ঠিত করে ইউনুচসহ বিদেশীদের তোষামোদী মাধ্যমে দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে রাজধানীর যোগাযোগ ব্যবস্থা কমিয়ে আনতে পদ্মা সেতু নির্মানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। বিদেশীরা আওয়ামী লীগের উন্নয়নে অসহযোগিতা করার কারণে প্রধানমন্ত্রী দেশীয় অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিএনপি-জামায়াত নেতারা এখন সেখানেও ষড়যন্ত্র শুরু করে দিয়েছে। নিজেরা দুর্নীতিবাজ বলে অন্যকে ভাবার কোন কারণ নেই। আওয়ামী লীগ দেশ ও জনগণের স্বার্থে কাজ করে। নিজেদের জন্য নয়। নেতৃবৃন্দ খুলনাবাসীসহ বিরোধী দলের উদ্দেশ্যে বলেন,  দেশকে ভালোবাসলে আসুন সরকারের সাথে এক হয়ে দেশ ও জনগণের স্বার্থে কাজ করি।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে এবং মিজানুর রহমান মিজানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন  আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন প্রমুখ। সভায় পবিত্র মাহে রমজান এবং জাতীয় শোকের মাস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি