ঘুষ গ্রহণ ও যুবককে আটক করে নির্যাতন: কালিগঞ্জ থানার ওসি ক্লোজড, কলারোয়া থানার ওসি’র বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ


প্রকাশিত : জুলাই ১৭, ২০১২ ||

ইয়ারব হোসেন : ঘুষ গ্রহণ ও এক যুবককে মিথ্যা অভিযোগে আটক করে নির্যাতনের অভিযোগে কালিগঞ্জ থানার ওসি আলী নূরকে ক্লোজড করা হয়েছে। রোববার তাকে সাতক্ষীরা পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়। এদিকে গতকাল মেহেরপুর সদর থানার ওসি মাসুদ কালিগঞ্জ থানায় যোগদান করেছেন।

জানাগেছে, কালিগঞ্জ থানায় যোগদার করার পর থেকে ওসি আলী নূর ব্যাপক চাঁদবাজি শুরু করে। উপজেলার চাকদা গ্রামের আব্দুল কাদের নামে এক যুবককে মিথ্যা অভিযোগে আটক করে তার উপর নির্যাতন করা ছাড়াও আলী নূও’র বিরুদ্ধে রয়েছে নারী কেলেংকারীর অভিযোগ। এসব অভিযোগের বিষয়ে তদন্তেসত্যতা মেলায় গতকাল তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। পুলিশ সুপার মো: আছাদুজ্জামান ওসি আলী নুরকে ক্লোজের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে কলারোয়া থানার বহুল আলোচিত ওসি মোল্ল্যা মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচেছ বলে একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে। ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের তদন্ত শেষ হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে কলারোয়ায় যোগদান করার পর থেকে সিমাহীন চাঁদবাজি, ফেনসিডিল ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মাসোয়ারা আদায়, মিথ্যা মামলা গ্রহণ, গ্রেপ্তার বাণিজ্য, মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহারসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগের বিষয়ে তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়। তদন্ত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়দেব চক্রবর্তী। একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, তদন্তে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের সত্যতা মিলেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়দেব চক্রবর্তী জানান, কলারোয়া তানার ওসি মোল্ল্যা মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ হয়েছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। ৩/৪ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে। তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।