পুলিশের সফল অভিযান : পিস্তল, বোমা, ফেনসিডিল, এ্যাম্বুলেন্সসহ ১ জন গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : জুলাই ২৯, ২০১২ ||

এম জিললুর রহমান : পুলিশের দুই দফের অভিযানে ১২৫ বোতল ফেনসিডিল, অত্যাধুনিক পিস্তল ১০ রাউণ্ড গুলিসহ হৃদয় নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসময় বাজাজ সিটি হ্যাণ্ড্রেড একটি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। একই সময়ে ফেনসিডিল ভর্তি একটি এ্যাম্বুলেন্স মোড় ঘুরতে যেয়ে পুকুরের মধ্যে পড়ে যায়। রাতে মাইক্রোবাস উদ্ধারের জন্য পুলিশ জেটিকল ফিট করে পুকুর থেকে এ্যাম্বুলেন্স উদ্ধারের চেষ্টা করছিল। রাত ১২টার পর পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান, সহকারি পুলিশ সুপার মোস্তফা কামাল, ওসি আসলাম খান, ওসি তদন্ত আমিনুল ইসলামসহ এক ডজন এসআই ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত ৯টার দিকে ভোমরা এলাকা থেকে শহরের সুন্দরবন ক্লিনিকের এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে চালক ফারুক হোসেন শহরের আসার পথে খানপুর পশ্চিমপাড়ার রাস্তার ব্যাক ঘুরতে যেয়ে সোজা পুকুরের মধ্যে পড়ে যায়। এসময় স্থানীয় জনতা এসে এ্যাম্বুলেন্সের মধ্যে থাকা বিপুল পরিমান ফেনসিডিল থেকে প্রায় ৫০০ বোতল এলাকার লোকজন লুট করে নেয়। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে সদর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পুকুর থেকে এ্যাম্বুলেন্স উদ্ধারের চেষ্টা করে। ঠিক সেই মুহুর্তে অপর একটি মোটর সাইকেলে এক যুবক ফেনসিডিল নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করলে সিপাহী আজিমের হাতে কামড় দিয়ে পালিয়ে যায়। ওই যুবকের কাছে থাকা ৭০ বোতল ফেনসিডিল ও পিস্তলের ৪ রাউণ্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। তার কাছ থেকে পরে বোমা ও পিস্তল উদ্ধার করা হয়। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযান অব্যহত ছিল।