শ্যামনগরে শ্রমিক দলের কমিটি গঠন নিয়ে অসন্তোষ চরমে


প্রকাশিত : জুলাই ৩০, ২০১২ ||

শ্যামনগর প্রতিনিধি : শ্যামনগর উপজেলার শ্রমিক দলের কার্যক্রম নিয়ে তীব্র অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। অসাংগঠনিক নানান সিদ্ধান্তে নেতাকর্মীরা বিভ্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি দারুণ হতাশায় নিমজ্জিত হচ্ছে।

অসাংগঠনিক কার্যক্রম বন্ধ করে বিএনপি’র নীতি ও আদর্শের সাথে সমন্বয় করে সংগঠন পরিচালনার বিষয়ে জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সুবিবেচনা প্রসূত কার্যকর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে উপজেলা শ্রমিক দলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ইউনিয়নে শ্রমিক দলের কমিটি গঠন করা হচ্ছে। আর সাংগঠনিক কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে নেতৃস্থানীয়রা তাদের মনোপুত ব্যক্তিদের নিয়ে কমিটি ঘোষণা করছে।

অভিযোগ উঠেছে, জন্মের পর থেকে একটি বারের জন্যও বিএনপি’র মিছিল সমাবেশে অংশগ্রহণ করে নি বরং আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্টদের পর্যন্ত শ্রমিক দলের নেতৃত্বভার দেওয়া হচ্ছে। আরও অভিযোগ উঠেছে, উপজেলা শ্রমিক দলের নেতৃবৃন্দ অধিকাংশ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নে না যেয়ে বরং বংশীপুরে বসেই তারা মনোপুত ব্যক্তিদের সমন্বয়ে কমিটি ঘোষণা করছে।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের কাছে স্থানীয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ মৌখিক অভিযোগ করেছে বলেও জানা গেছে।

অভিযোগ উঠেছে, গত শনিবার উপজেলার রমজাননগর ইউনিয়ন শ্রমিকদলের কমিটি ঘোষণা করা হয়। ঐ কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে রমজাননগর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল বারির ছোট ভাইকে। ইউনিয়ন শ্রমিক দলের সম্পাদক মনোনীত হওয়া আব্দুল হান্নানের আর এক ভাই ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সভাপতি।

এ বিষয়ে রমজাননগর ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি শহীদুজ্জামান বলেন, গত প্রায় চার বছর ধরে যারা সরকার দলীয় লোকজন সেজে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছিল তারাই এখন সময়ের প্রবাহে বিএনপি’র রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে আগামীতেও চাঁদাবাজিসহ অত্যাচারী হিসেবে নিজেদের দাপট অব্যাহত রাখতে চাইছে।

রমজাননগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল ও তাঁতী দলের নেতৃবৃন্দ অনুরুপ বক্তব্য দিয়ে অবিলম্বে শ্রমিক দল পুনর্গঠন করার জন্য জেলা শ্রমিক দল নেতৃবৃন্দসহ জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

একই সাথে প্রকৃত শ্রমিকদের সমন্বয়ে উপজেলা শ্রমিকদলের কমিটি পুনর্গঠনেরও দাবি জানিয়েছে উপজেলা বিএনপি এবং ইতিপূর্বে শ্রমিকদলের রাজনীতির সাথে জড়িতরা।