জামাইয়ের বাড়ি যাওয়া হলো না বৃদ্ধা ফাতেমার


প্রকাশিত : জুলাই ৩১, ২০১২ ||

শ্যামনগর প্রতিনিধি : বাড়ি থেকে বের হয়েছিল জামাইয়ের বাড়িতে যাবে বলে। কিন্তু সামান্য পথ এগুতেই ঘাতক মোটর সাইকেল চালক তার প্রাণ কেড়ে নিয়ে রুদ্ধ করে দিলো বৃদ্ধার জামাইয়ের বাড়িতে যাওয়ার স্বপ্ন।

পাল্লা দিয়ে মোটর সাইকেল চালাতে গিয়ে ফাতেমা বেগম নামের ঐ বৃদ্ধার জীবন কেড়ে নিল ঘাতক মোটর সাইকেল চালক। গতকাল বেলা দশটার দিকে শ্যামনগর উপজেলার সোনাখালী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত বৃদ্ধা সোনাখালী গ্রামের মৃত এন্তাজ আলী গাজীর স্ত্রী। দুর্ঘটনার পরপরই তাকে শ্যামনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহতের প্রতিবেশী দৌহিদুল ইসলাম জানান, গতকাল সকালে ফাতেমা বেগম তার মেয়ে জাহানারাকে নিয়ে উপজেলা সদরের যাদবপুর গ্রামে জামাই নজরুল ইসলামের বাড়িতে যাচ্ছিল। মা-মেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে কিছুদূর এগুনোর পর বংশীপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে আসা মোটর সাইকেলের ধাক্কায় ফাতেমা বেগম মারাত্মক আহত হয়।

তিনি আরও জানান, সোনাখালী গ্রামের কেতা মোল্যার ছেলে আবু বক্কার ভাড়ায় মোটর সাইকেল চালায়। গতকাল সকালে সে বংশীপুর থেকে মোটর সাইকেল ছেড়ে এসে অপর একটি মোটর সাইকেল তাকে অতিক্রম করার চেষ্টা করলে দু’জন পাল্লা দিয়ে মোটর সাইকেল চালাতে শুরু করে। এসময় সোনাখালী এলাকায় পৌছে কেউ কাউকে জায়গা না দেওয়ায় আবু বক্কারের মোটর সাইকেলের ধাক্কায় ফাতেমা ছিটকে রাস্তার পাশে পড়ে আহত হয়।