খুলনা-পাাইগাছা সড়কে ধানের চারা রোপন করেছে ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী


প্রকাশিত : জুলাই ৩১, ২০১২ ||

তালা প্রতিনিধি : গতকাল খুলনা-পাইকগাছা সড়কের তালা উপজেলা সংলগ্ন মেলা বাজার নামক স্থানে ধানের চারা রোপন করে এলাকাবাসী তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে। সূত্র জানায়, সম্প্রতি সড়কটি চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়ে। এতে ৪/৫ দিন আগে সড়কটিতে গাড়ী চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সড়কটি পুরোপুরি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়লেও ঝুঁকি নিয়ে দু’একটা গাড়ি চলাচল করছে।

সূত্র আরো জানায়, দায়সারাবাবে সংস্কার কাজ করায় বছর না ঘুরতেই সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তবে  সড়কটি মানুষের মনণ ফাঁদে পরিণত হওয়ার পর আর কোন সংস্কার কাজ হয়নি। একটু বর্ষা হলেই চলাচল একেবারে বন্ধ হয়ে যায়! সড়কের বড় বড় গর্তে পানি জমে তা আর চেনার উপায় থাকে না। তাছাড়া গর্তগুলোতে গাড়ি আটকে ঘন্টার পর ঘন্টা চলাচল বন্ধ থাকে।

সড়কটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে কয়রা থেকে যশোর, ঢাকা, খুলনাসহ উত্তরবঙ্গের সাথে সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন এলাকাবাসী। এছাড়া চলতি বর্ষা মৌসুমে সংস্কার করা না হলে আঠার মাইল -পাইকগাছা সড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাবে বলে ভূক্তভোগীরা জানিয়েছেন। অন্যদিকে আঠার মাইল থেকে পাইকগাছা পর্যন্ত সড়কটির কাজের জন্য অর্থ বরদ্ধসহ টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেও, কাজ শুরু না হওয়ায় এ জনপদের মানুষের মাঝে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সেকারণে রাস্তায় ধানের গোছা রোপন করে স্থানীয় লোকজন তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করেছে।

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, এ সড়ক সংস্কারের জন্য আমি সর্বদা চেষ্টা চালাচ্ছি। এমনকি  সওজের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে যোগাযোগও করা হয়েছে। সে সময় তিনি আশ্বাস দিয়ে বলেন, যতদ্রুত সম্ভব এ সড়ক টি চলাচলের উপযোগী করে তোলা হবে। এমনকি বর্তমান এ সড়কটি চলাচল উপযোগী করার জন্য উপজেলার জাতপুর নামক স্থানে কয়েক ট্রাকে করে ইট ফেলানো হয়েছে।

তালা উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার জনান, এ সড়ক সংস্কারের জন্য তালা-কলারোয়া আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান আমাকে সওজের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে যোগাযোগ করে রাস্তা সংস্কারের ব্যবস্থা করার কথা বলেন। সে নির্দ্দেশানুযায়ী আমি প্রায় ৮/৯ দিন যাবৎ সওজের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।