শ্যামনগর সদর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা


প্রকাশিত : আগস্ট ৪, ২০১২ ||

উপকুলীয় অঞ্চল (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ লিয়াকত আলী বাবুর নামে শ্যামনগর থানায় একটি চাঁদাবাজি মামলা হয়েছে। মামলার বিবরনে জানাযায়, উপজেলার সোয়ালিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক সোয়ালিয়া ফ্রেন্ডসীপ হাসপাতালের মাটি ভরাটির কাজ করতে থাকলে চেয়ারম্যান শেখ লিয়াকত আলী ও তার দলবল ৩টি মটর সাইকেল যোগে সেখানে গিয়ে রাজ্জাকের নিকট ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করায় রাজ্জাক ও তার স্ত্রীকে মারপিট করে তার প্যান্টের পকেট থেকে ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে  যান। পরে ৩ দিনের মধ্যে ৬৫ হাজার টাকা না দিলে খুন করার হুমকি দিয়ে আসামীরা ঘটনা স্থল ত্যাগ করেন। পরে স্থানীয়রা রাজ্জাককে শ্যামনগর হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনাটি ঘটে গত ৩০ জুলাই বিকাল ৫টায়। ১ আগস্ট শ্যামনগর থানায় আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে চেয়ারম্যান লিয়াকতসহ ৫ জনের নামে একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেছে, যার নং ০৩/৩৪৭ তারিখ ১ আগস্ট ২০১২। এ মামলায় এখনো পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। সদর চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী বাবু প্রতিবেদককে জানান, ঘটনার দিন থেকে অদ্যবধি আমি চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আছি। রাজনৈতিক  প্রতিহিংসার জের ধরে প্রতিপক্ষরা আমার নামে মিথ্যা একটি চাঁদাবাজি মামলা করেছে।