সুন্দরবনে বনজীবীদের উপর বনদস্যুদের গুলিবর্ষণ, ৪ জেলে গুলিবিদ্ধ


প্রকাশিত : August 25, 2012 ||

সামিউল মনির, শ্যামনগর: সুন্দরবনে মাছ শিকারে যাওয়া জেলেদের উপর বনদস্যু আমজাদ বাহিনীর সদস্যরা গুলি চালিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ন’টার দিকে পশ্চিম সুন্দরবনের কোবাতক টহল অফিস সংলগ্ন সন্ন্যাসীর চর এলাকায়। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (রাত দশটা তিরিশি মিনিট) আহতদের নিয়ে তাদের অপরাপর সহযোগীরা শ্যামনগর হাসপাতালের পৌঁছাতে পারেনি।

প্রাথমিক তথ্যে জানা গেছে, আহতরা সবাই উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের পাতাখালী গ্রামের বাসিন্দা। আহতরা হলো উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের লিয়াকত গাজীর ছেলে মহিবুল−াহ, সাইজদ্দি গাজীর ছেলে বাপ্পী (১৫), মোকছেদ গাজীর ছেলে মোখলেছুর রহমান, আরশাদ হাওলাদারের ছেলে আব্দুল−াহ। সূত্রটি দাবি করেছে মহিবুল−াহর শরীরে দশটি, বাপ্পীর শরীরে তিনটি, মোখরেলছুর রহমানের শরীরে সাতটি ও আব্দুল−াহর শরীরে পাঁচটি টেটা বিদ্ধ হয়।

সূত্র জানায়, সুন্দরবনের বুড়িগোয়ালীনি স্টেশন থেকে অনুমতি নিয়ে গতকাল সকালে পাতাখালী গ্রামের ছয় জনের একটি দল সুন্দরবনে যায় মাছ শিকারের জন্য। গতকাল রাতে কোবাতক টহল অফিস সংলগ্ন সন্ন্যাসীর চর এলাকায় এলাকায় জাল পেতে মাছ ধরার সময় একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে আমজাদ বাহিনীর সদস্যরা তাদের দিকে এগিয়ে আসতে তাকে। এসময় তারা বিপদ বুঝতে পেরে জাল ফেলে দ্রুত নৌকা নিয়ে বনের ছোট একটি খালের মধ্যে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করলে বনদস্যুরা গুলি চালায়।

এসময় বাপ্পীসহ আরও তিন জেলে বনদস্যুদের ছোড়া গুলির ছারার আঘাতে মারাত্মক আহত হয়। এবিষয়ে বুড়িগোয়ালীনি নৌ পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে কদমতলা স্টেশন অফিসার শাহাদাৎ হোসেন জানান, কোস্টগার্ড’র তরফ থেকে এমন একটি খবর জানতে চাওয়া হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তিনি ঐ ঘটনা সম্পর্কে কিছু জানাতে পারেনি।