নবাতকাটিতে অনৈতিক সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় এক গৃহবধুকে পিটিয়ে জখম


প্রকাশিত : অক্টোবর ২৯, ২০১২ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: স্বামী ও ননদের পৃথক অনৈতিক সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় এক গৃহবধুকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। গত বুধবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা জেলা সদরের নবাতকাটি গ্রামেএ ঘটনা ঘটে। মারাত্মক জখম ওই গৃহবধু বর্তমাসে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সদর হাসপতালে চিকিৎসাধীন নবাতকাটি গ্রামের শৈব্যা সরকার (৪০) জানান, তার স্বামী জগদীশ সরকারের সঙ্গে দেবর ভূমির স্ত্রী অমেলা সরকারের দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে। এ ছাড়া ননদ স্বামী পরিত্যক্তা রেবার সঙ্গে সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর বড় বাজারের মাছ ব্যবসায়ি বিধান সরকারের অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। উভয় ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাকে ইতিপূর্বে কয়েকবার মারপিট করে জখম করা হয়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় বিধান সরকারকে তাদের বাড়িতে আসতে মানা করায় ও স্বামীকে অমেলা সরকারের বাড়িতে যেতে মানা করায় তাকে স্বামী ও ননদ মিলে এলোপাতাড়ি মারপিট করে। পরে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার সময় রাস্তায় ফেলে অমেলা সরকার, তার ছেলে রবি ও মেয়ে মনা তাকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে।  খবর পেয়ে প্রতিবেশী সুধাংশু সরকার, জাকির হোসেন, আব্দুর রশিদসহ কয়েকজন তাকে উদ্ধার করে বাপের বাড়ি শিবপুর ইউনিয়নের পুকুর কুলিয়া গ্রামে পৌঁছে দেয়। সেখানে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নেওয়ার পর অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় শুক্রবার সকালে তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সাতক্ষীরা সদর হাসপতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ মানস কুমার মণ্ডল জানান, শৈব্যা সরকারের সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সুস্থ হতে কয়েকদিন সময় লাগবে।