নাথুয়ারডাঙ্গায় বাগানবাড়ীর কেয়ারটেকরকে কুপিয়ে হত্যা, কোটিপতি পারভেজ গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : অক্টোবর ২৯, ২০১২ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: সাতক্ষীরা সদর উপজেলার খানপুর নাথুয়ারডাঙ্গা এলাকার একটি বাগান বাড়ী থেকে এক ব্যক্তির গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ওই বাগান বাড়ী থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যক্তির নাম আবুল হোসেন (৬৫)। তিনি দেবহাটা উপজেলার পাঁচপোতা গ্রামের মৃত জালাল মুন্সীর ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ওই বাগান বাড়ির মালিক সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর গ্রামের শেখ শফিকুজ্জামান পারভেজকে (৩৮) গ্রেপ্তার করেছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী মো: ইব্রাহীম জানান, পারভেজের বাগান বাড়ীর কেয়ারটেকার আবুল হোসেনের ৪ মাসের বেতন বকেয়া ছিল। বকেয়া বেতন চাওয়ার কারণে বাগান বাড়ীর মালিক তাকে গত শুক্রবার রাতের কোন এক সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে তার লাশ ওই বাগান বাড়ীতে ফেলে রাখে আসে। নিহত আবুল হোসেন ঈদে বাড়ীতে না যাওয়ায় তার ছেলে শনিবার দুপুরের পর বাবাকে খুঁজতে আসে ওই বাগান বাড়ীতে। ছেলের চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ সাড়ে চার টার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। এ হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ বাগান বাড়ীর মালিককে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করেছে। সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মো: আসাদুজ্জামান, সার্কেল এসপি মোস্তফা কামাল ও সদর থানা ওসি গাজী ইব্রাহিম ঘটনাস্থল পদির্শন করেন। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে  আরাফাত রহমান বাদী সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

এদিকে আবুল হোসেন হত্যাকাণ্ডের ক্লু উদঘাটন করতে খুলনা থেকে গোয়েন্দা বিভাগ সিআইডির ক্রাইম টিম রবিবার সকালে সাতক্ষীরায় আসে। তারা অত্যাধুনিক মেশিনারিজসহ বিভিন্ন ক্যামিক্যাল এনে ঘটনাস্থলে প্রয়োগ করে হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টার পাশাপাশি দালিলিক স্বাক্ষ্য প্রমানের চেষ্টা করে। সিআইডির ক্রাইম টিমের প্রধান ইন্সেপেক্টর সচিন্দ্রনাথসহ ৪ সদস্যের এ টিম তদন্ত শেষে সন্ধ্যায় খূলনায় ফিরে যায়।