কালিগঞ্জ মুক্ত দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন ও আলোচনা


প্রকাশিত : নভেম্বর ২১, ২০১২ ||

বিশেষ প্রতিনিধি: ১৯৭১ সালের ২০ নভেম্বর কালিগঞ্জ থানা পাক হানাদার ও তাদের এ দেশীয় দোসরদের হাত মুক্ত হয়। ঐতিহাসিক এ দিবসটি উদ্যাপন উপলক্ষে মঙ্গলবার বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কালিগঞ্জ ইউনিট ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ড কালিগঞ্জ ইউনিটের পক্ষ থেকে মানববন্ধন, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সকাল ১০টায় যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে কালিগঞ্জের খানবাহাদুর আহছানউল্লা (র.) সেতু সংলগ্ন সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ মহাসড়কে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

সাড়ে ১০টায় মুক্তাঞ্চল স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কালিগঞ্জ ইউনিটের কমান্ডার শেখ নাসির উদ্দীনের সভাপতিত্বে শহীদ সোহরাওয়ার্দী পার্কে সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের প্রশাসক, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মুনসুর আহম্মেদ।

ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাকিমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী আহম্মদ আলী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কালিগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি ও যুদ্ধকালীন কমান্ডার শেখ ওয়াহেদুজ্জামান, যুদ্ধকালীন কমান্ডার সাবেক এএসপি শেখ আতাউর রহমান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ যশোর এমএম কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর শেখ আবুল হোসেন, সহকারি কমান্ডার শেখ আব্দুল বারেক ও কালিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সুরাত আলী, বিশিষ্ট চিকিৎসক ও মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক হজরত আলী প্রমুখ।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড কালিগঞ্জ ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক এসএম গোলাম ফারুক এবং প্রধান অতিথিকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ড কালিগঞ্জ ইউনিটের সভাপতি শেখ শাহীনুর রহমান শাহীন।

আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বই কেনার জন্য ৫০ হাজার টাকার অনুদান এবং মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কালিগঞ্জ ইউনিটের অনুকূলে ৭০ শতক জমির দলিল হস্তান্তর করেন। এছাড়াও এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে জেলা পরিষদের প্রশাসক উপজেলা সদরে অবস্থিত ডাকবাংলোর দো’তলার কাজ শুরুর ঘোষণা দেন। দুপুরে মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারের সদস্যসহ উপস্থিত অতিথিবৃন্দের জন্য প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়। সন্ধ্যায় বহিরাগত শিল্পীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।