দলুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে অর্থ বাণিজ্য


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২৭, ২০১২ ||

খলিষখালী (পাটকেলঘাটা) প্রতিনিধি: পাটকেলঘাটার দলুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতির বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম, দুর্নীতি ও অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ এনে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে এলাকাবাসী বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবদেন করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তালা উপজেলার দলুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শূন্য পদের জন্য ৫ জন শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগের নিমিত্তে গত ৪ নভেম্বর পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে শূন্য ৫ পদে ৫৬টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। এর মধ্যে বাংলা এবং গ্রন্থগারিক পদে প্রয়োজনীয় সংখ্যক আবেদনপত্র জমা না পড়ায় ২টি পদের নিয়োগ স্থগিত করে সহকারি শিক্ষক কৃষি, হিন্দু ধর্ম ও অফিস সহকারি পদে নিয়োগের জন্য ৫ সদস্যের একটি নির্বাচনী বোর্ড গঠন করা হয়। গত ২৫ ডিসেম্বর তালা সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত নির্বাচনী বোর্ডে ডিজি’র প্রতিনিধি হিসেবে প্রধান শিক্ষিকা মায়ারানী নাথ, মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নূর মোহাম্মদ তেজারত, দলুয়া স্কুলের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু, প্রধান শিক্ষক আনন্দমোহন হালদার ও পরিচালনা কমিটির সদস্য রণজিত সরকার নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করেন। তবে প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি সম্পূর্ণ অবৈধভাবে অর্থ বাণিজ্যের মাধ্যমে শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগ দিয়েছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ নিয়ে ঐ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য প্রাক্তন শিক্ষক শিবপদ বিশ্বাস জানান, তার ছেলের জন্য হিন্দু ধর্মের ২টি প্রশ্ন আগের দিন সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু ফাস করে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। এদিকে আরেক সদস্য বরুণ বিশ্বাস জানান, তার ভাই নারায়ন চন্দ্রের অফিস সহকারি পদে চাকুরির জন্য সভাপতি নিজেই ৬ লাখ টাকা দাবি করেন। এসব অনিয়ম দুর্নীতির বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনন্দমোহন হালদার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি কিছুই জানেন না, সবই সভাপতি জানেন বলে এড়িয়ে যান। অবৈধ ভাবে শিক্ষক নিয়োগ ও অর্থ বাণিজ্যের বিষয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কিশোরী মোহনের কাছে জানতে চাইলে তিনি কাগজপত্র না দেখে কোন কিছু বলতে রাজি হননি।