ফিরে দেখা ২০১২: জেলায় বিজিবি’র অভিযানে ৩৪ কোটি টাকার অবৈধ পণ্য উদ্ধার, ৫৩ চোরাকারবারি আটক


প্রকাশিত : January 6, 2013 ||

ইয়ারব হোসেন: সাতক্ষীরা ৩৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সদস্যরা গত এক বছরে সীমান্তের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩৪ কোটি টাকার অবৈধ পণ্য আটক করছে। এ সময়ের মধ্যে ৮৫ হাজার ২২১ বোতল ফেনসিডিল, ৩৮ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা ও ২ লাখ ৮৯ হাজার ৮২৫ পিচ যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। করিডোর থেকে রাজস্ব আয় হয়েছে ২৭ কোটি টাকা। এ সময়ে ৫৩ জন চোরাকারবারি আটক হয়েছে। এছাড়া ১৫৭ জন চোরাকারবারিকে পলাতক দেখিয়ে মামলা দায়ের করেছে বিজিবি।

ভারত থেকে আসার সময় আটককৃত মালামালের মধ্যে রয়েছে ফেনসিডিল, আনাগ্রা ও সিনেগ্রা ট্যাবলেট, বিভিন্ন প্রকার মদ, গাঁজা, জর্জেট শাড়ি, থ্রি-পিচ, থান কাপড়, জিরা, ইউরিয়া সার, মুরগির ডিম, বিভিন্ন ধরনের মটর পার্টস, মটরসাইকেল, গুড়ো দুধ, স্ট্রিল সাগ্রমী, শাল চাদর, কিসমিস, প্যান্ট ও শার্টের কাপড়, গরু, অস্ত্রসহ বিভিন্ন পণ্য। অপরদিকে বাংলাদেশে থেকে ভারতে যাওয়ার সময় আটক হয়েছে ইলিশ মাছ, চামড়া, সুপারি, সোনা, রসুনসহ বিভিন্ন পণ্য।

সাতক্ষীরা ৩৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল আবু বাছির জানান, সাতক্ষীরা সীমান্তে চোরাচালান রোধে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য বিজিবি’র মহাপরিচালক তাকে প্রশংসাপত্র দিয়েছেন। অতীতের যে কোন ব্যাটালিয়নের তুলনায় ৩৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সদস্যরা বিপুল পরিমান অবৈধ পণ্য আটক করতে সক্ষম হয়েছে। একই সাথে গরু থেকে গত বছরে ২৭ কোটি টাকা রাজস্ব আয় হয়েছে। সীমান্তে বিজিবি’র অভিযান অব্যাহত রয়েছে। প্রতিনিয়ত অবৈধ পণ্য আটক হচ্ছে। তিনি বলেন, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ সকলের সহযোগিতা পেলে সীমান্ত অপরাধ কমানো সম্ভব হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে ৮ কোটি ৯০ হাজার টাকার অবৈধ পণ্য আটক ও গরু থেকে রাজস্ব আয় হয়েছিল ১ কোটি ৪৯ হাজার টাকা।