খুলনায় সোনাডাঙ্গা থানা আ.লীগের বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ: উন্নয়ন, উৎপাদন আর সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়েছেন


প্রকাশিত : জানুয়ারি ১০, ২০১৩ ||

খুলনার সোনাডাঙ্গা থানা আ.লীগের বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, উন্নয়ন, উৎপাদন আর সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা খুলনাসহ দেশকে উন্নত বিশ্বের দিকে এগিয়ে নিয়েছেন। ভিশন ২০২১-কে সামনে রেখে তার এই অভিযাত্রা। সে কারণেই দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মত খুলনায়ও তিনি জোট সরকারের দুঃশাসনে বন্ধ হওয়া পিপলস্ জুট মিলকে পুনরায় চালু করে হাজার হাজার বেকার শ্রমিককে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। জাতিকে শিক্ষায় উন্নত করতে এবং কৃষিতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটাতে খুলনায় কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, স্কুল ও কলেজ সরকারিকরণ, ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্প তৈরীতে এ অঞ্চলে বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন করেছেন। খুলনা মহানগরীকে তিলোত্তমা নগরীতে পরিণত করতে শহীদ হাদিস পার্ককে আধুনিক পার্কে রূপান্তর করা হচ্ছে। খুলনা মহানগরীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী প্রায় সাড়ে ৫শ’ কোটি টাকা দিয়েছেন। খুলনার বন্ধ দৌলতপুর জুট মিল পুনরায় চালু করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ২৪ জানুয়ারি মিলটি আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। এছাড়া খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দিয়েছেন। খুলনায় দেয়া প্রধানমন্ত্রীর সকল প্রতিশ্র“তি তার সরকারের সময়েই বাস্তবায়ন হবে ইনশাল¬াহ। নেতৃবৃন্দ খুলনাবাসীর উদ্দেশ্যে আরো বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের মিথ্যাচারের কান দিবেন না। এ অঞ্চলের উন্নয়ন একমাত্র শেখ হাসিনার সময়েই হয়েছে, আগামীতেও হবে।

বুধবার সন্ধ্যায় সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের জরুরী বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ কামালের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান পারভেজের পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন, মলি¬ক আবিদ হোসেন কবির, উপধ্যক্ষ আলমগীর কবির, মকবুল হোসেন মিন্টু, শ্যামল সিংহ রায়, শেখ আনোয়ার হোসেন, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, মাহবুব আলম সোহাগ, খন্দকার মজিবর রহমান, সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, মনিরুজ্জামান সাগর, হাফেজ শামীম, হাবিবুর রহমান দুলাল, তসলিম আহমেদ আশা প্রমুখ।