কারিমা স্কুলে কম্পিউটার শিক্ষকদের প্রশিক্ষন কর্মশালার সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রফেসর আমিরুল আলম খান : এখন স্কুলে বসেই অনলাইনে সকল সেবার সুযোগ হয়েছে


প্রকাশিত : January 20, 2013 ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: শিক্ষা সেবা তৃনমূল পর্যায়ে পৌছে দিতে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আওয়াধীন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়ান লাইন সার্ভিস জোরদার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রতিটি মাধ্যমিক,উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিজস্ব ওয়েবসাইট খোলা হয়েছে। এখন থেকে যশোর শিক্ষা বোর্ডের সকল সেবা ওয়ান লাইনের মাধ্যমে করার আহবান জানিয়ে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আমিরুল আলম খান বলেন,এখন থেকে শিক্ষা বোর্ডের সেবা নিতে কোন শিক্ষককে আর হয়রানী হতে হবে না।
ঘুষ, দূনীতি ও অবৈধ লেনদেন থেকে মুক্তি পাবে শিক্ষকরা। তিনি বলেন,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের নিবন্ধন,রেজিট্রেশন করা এবং সার্টিফিকেট উত্তোলন, মাকর্শীটসহ প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট অনলাইনে মাধ্যমে পাওয়া যাবে। কোন শিক্ষককে যশোর শিক্ষা বোর্ডে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রফেসর আমিরুল আলম খান শিক্ষকদের উদ্যশ্যে বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকল তথ্য ওয়েব সাইটে পাওয়া যাবে এবং সকল বিষয়ে অন লাইনে আবেদন করতে হবে। শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আমিরুল আলম খান গতকাল সাতক্ষীরার কারিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কম্পিউটার শিক্ষকদের পারস্পরিক সক্রিয় ও ওয়েব সাইটের উপর প্রশিক্ষন কর্মশালার সমাপনি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,সাতক্ষীরা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) হামিম হাসান,যশোর শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক আব্দুস সালাম বিশ্বাস,সাতক্ষীরা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কিশোরী মোহন সরকার, যশোর শিক্ষা বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী কামাল হোসেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোজাফফর রহমান, কারিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু তাহের প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রফেসর আমিরুল আলম খান বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে ও ভিশন টোয়েন্টি টোয়েন্টি ওয়ান বাস্তবায়নে কম্পিউটার শিক্ষকদের দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখতে হবে। বিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম আন্তরিকতা ও নিষ্টার সাথে অনলাইনের মাধ্যমে করতে হবে।তিনি যশোর শিক্ষা বোর্ডের সকল সেবা পেতে ওয়েবসাইটে বেশি বেশি ভিজিট করারজন্য কম্পিউটার শিক্ষকদের প্রতি আহবান জানান। বর্তমান বিশ্বের সাথে প্রতিযোগীতায় টিকে থাকতে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে মন্তব্য করে প্রফেসর আমিরুল আলম খান বলেন, তথ্য প্রযুক্তিগত শিক্ষার জন্য বাংলাদেশে লড়াই শুরু হয়েছে, এই লড়ায়ে আমাদের জিততে হবে। তাহলে বাংলাদের আগামী প্রযন্ম হবে আধুনিক ডিজিটাল প্রযন্ম। প্রফেসর আমিরুল আলম খান বলেন, দেশের প্রথম চ্যালেঞ্জ নিয়ে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বোর্ড অনলাইন সেবা দিতে শুরু করে। অল্পদিনে তা শিক্ষা বোর্ডের আওয়াতাধিন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সুফল পেতে শুরু করেছে। এই সেবাকে এগিয়ে নিতে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরও দায়িত্ববান হওয়ার আহবান জানান তিনি। এদিকে সকাল ১০ টা কারিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নিজস্ব ল্যাবে সাতক্ষীরা জেলার কম্পিউটার শিক্ষকদের পারস্পরিক (ইন্টার একটিভ) ও ওয়েভসাইটের ওপর প্রশিক্ষন কর্মশালা শুরু হয়। যশোর শিক্ষা বোর্ডের তত্বাবধায়নে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় হাতে কলমে ওয়েব সাইটের কার্যক্রম শেখানো হয়। কর্মশালায় জেলা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭০ জন কম্পিউটার শিক্ষক অংশ নেন।