দৌলতপুর কলেজ জাতীয়করণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান


প্রকাশিত : January 23, 2013 ||

নগরীর দৌলতপুর কলেজ (দিবা/নৈশ) জাতীয়করণে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, খুলনার সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকসহ সরকার দলীয় চার শীর্ষ নেতার সুপারিশকৃত স্মারকলিপি প্রধানমন্ত্রী বরাবরে প্রেরণ করা হয়েছে। সুপারিশকারী অন্য দুই নেতা হলেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হারুনুর রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা। সোমবার কলেজের অধ্যক্ষ ড: চৌধুরী মাহবুবুল হকসহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ খুলনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে এ স্মারকলিপি প্রদান করেন।
স্মারকলিপিতে বলা হয়, শ্রমিক অধ্যুষিত এলাকায় অর্ধ শতাব্দীর প্রাচীন দৌলতপুর কলেজ জাতীয়করণের দাবি দীর্ঘ দিনের। কলেজটি জাতীয়করণ না হওয়ায় এ এলাকার হাজার হাজার শিক্ষার্থী মানসম্পন্ন শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। স্বাধীনতরার পূর্বে স্থাপিত খুলনা ও বরিশাল বিভাগের মধ্যে বৃহত্তম বেসরকারী ডিগ্রি কলেজ দৌলতপুর কলেজ। এ প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে দেশে বিদেশে বিভিন্ন পর্যায়ে চাকুরী করে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। সমকক্ষ এমনকি অনেক নতুন ছোট ছোট কলেজ জাতীয়করণ করা হলেও আজও দৌলতপুর কলেজ জাতীয়করণ করা হয়নি। ২০১১ সালের ৫ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান তার বক্তৃতায় ১নং দাবি হিসেবে দৌলতপুর কলেজ জাতীয়করণের দাবি জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি