জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছে জেলা ১৪ দল


প্রকাশিত : March 7, 2013 ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জামায়াত-শিবিরের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের বাড়িঘর ও দোকানপাট পরিদর্শন করেছেন জেলা ১৪ দলের নেতৃবৃন্দ। বুধবার বিকেলে নেতৃবৃন্দ জেলা সদরের ধুলিহর, ব্রহ্মরাজপুর, গোবরদাড়ি, ফিংড়ি, ব্যাংদহাসহ বিভিন্নœ এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সাথে কথা বলেন এবং তাদের শান্ত্বনা দেন। নেতৃবৃন্দ এসময় জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্য ও তাণ্ডবযজ্ঞে চরম ধৈর্যের পরিচয় দেয়ার জন্য এলাকার মানুষকে ধন্যবাদ জানান।
নেতৃবৃন্দ সাম্প্রদায়িক উগ্র জামায়াত-শিবিরের মিথ্যাচার, অপপ্রচার, গুজব, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে পাড়ায় পাড়ায় ব্রিগেড গড়ে তোলার আহক্ষান জানান। জামায়াত-শিবির কোন এলাকায় ভাঙচুর, লুটপাট সন্ত্রাস সৃষ্টির চেষ্টা করলে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাপিয়ে পড়ার জন্য জনগণের প্রতি আহবক্ষান জানান। পবিত্র ধর্মের নামে কোন প্রকার অপপ্রচার করলে জামায়াত-শিবিরকে প্রতিহত করার নির্দেশ দেন তারা। এছাড়া পাড়ায় পাড়ায় জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের নাম পরিচয় ও অবস্থান সম্পর্কে জানানোর জন্য নেতৃবৃন্দ জনতার প্রতি আহক্ষান জানান।
বৃহস্পতিবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্তজামায়াত-শিবিরের তাণ্ডরের খণ্ড চিত্র দেখে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং জনগণকে জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে রূখে দাঁড়ানোর আহবান জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক মুনসুর আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম শওকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শাহাজন আলী, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ আবুল হোসেন, হাবিবুর রহমান হবি, গনেশ চন্দ্র মণ্ডল, ডা. মুনসুর আহমেদ, লুৎফর রহমান, স ম জালাল উদ্দীন, মিজানুর রহমান বাবু, শামসুর রহমান প্রমুখ।