হরতালের দ্বিতীয় দিনেও আগরদাড়ীতে শক্ত অবস্থানে ছিলো মহাজোট


প্রকাশিত : মার্চ ২০, ২০১৩ ||

ডেস্ক রিপোর্ট: হরতালের দ্বিতীয় দিনেও সদর উপজেলার আগরদাড়ী ইউনিয়নে কঠোর অবস্থানে ছিলো আওয়ামী লীগসহ মহাজোট নেতৃবৃন্দ।
১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতালের দ্বিতীয় দিনে মঙ্গলবার ভোর থেকে বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা সদর উপজেলার আগরদাড়ী ইউনিয়নের বাঁশদহা ও বাবুলিয়া এলাকার সড়কে গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ ও পিকেটিং করে স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত করে। কিন্তু বেলা বাড়ার সাথে সাথে তাদের আর দেখা মেলে নি।
এদিকে বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের প্রতিহত করতে স্থানীয় আগরদাড়ী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগসহ মহাজোটের নেতা-কর্মীরা বাঁশদহা ও বাবুলিয়া এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেন। এ সময় নেতা কর্মীরা লাঠি-সোটা নিয়ে মহড়া দিলে বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা পিছু হটে। আগরদাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হবি ও স্থানীয় বাজার কমিটির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা শওকাত হোসেনের নেতৃত্বে এ সময় বাবুলিয়া বাজারে হরতাল বিরোধী কার্যক্রমে অংশ নেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মাকসুর রহমান, আনারুল ইসলাম, ডা. আমানুল্লাহ, যুবলীগ নেতা শামসুর রহমান, মোহাম্মাদ আলী প্রমুখ।
এ ব্যাপারে আগরদাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হবি জানান, আগরদাড়ীতে জামায়াত-শিবির এবং বিএনপির উগ্রপন্থী নেতা-কর্মীরা সাধারণ মানুষের চলাচলে ব্যাপক অসুবিধার সৃষ্টি করে। তাই অপশক্তিকে প্রতিহত করতে আমরা শক্ত অবস্থান নিয়েছি। আগরদাড়ী ইউনিয়নে সব ধরণের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড থেকে জনসাধারণকে বাঁচাতে ও যে কোন ধরণের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে মহাজোট নেতা-কর্মীরা প্রস্তুুত বলেও জানিয়েছেন তিনি।