কলেজ মোড়ে সংখ্যালঘু ব্যবসায়ীর দোকান ভাঙচুর, আটক ২


প্রকাশিত : মার্চ ২০, ২০১৩ ||

ডেস্ক রিপোর্ট: বিএনপিসহ ১৮ দলের ডাকা হরতালে শহরের কলেজ মাড়ে এক সংখ্যালঘু ব্যবসায়ীর দোকান ভাঙচুর করেছে বিএনপি কর্মীরা। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় কলেজ মোড়ের করুনাময়ী স্টোরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মীরা। এ সময় তারা রাস্তায় দাড়িয়ে থাকা একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।
এ ঘটনায় পুলিশ বিএনপির দুই নেতা-কর্মীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো রাজার বাগান এলাকার কছিম উদ্দীনের ছেলে মোহাম্মদ আলী ও ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মতিনুর রহমান কচি।
এদিকে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় করুনাময়ী স্টোরের মালিক আনন্দ কর্মকার বাদী হয়ে মঙ্গলবারই ৪ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ২০/২৫ জনকে আসামি করে সদর থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
করুনাময়ী স্টোরের মালিক আনন্দ কর্মকার জানান, হরতালে কলেজ মোড়ে কোন সময় পিকেটিং হয় না। সকল দোকান পাঠ খোলা থাকে। গতকালও দোকান পাট খোলা ছিল। হঠাৎ বিএনপির পিকেটাররা তার দোকানে হামলা করে ভাঙচুর চালায়। অন্যান্য দোকান পাট খোলা থাকলেও আমি হিন্দু বলে আমার দোকান ভাঙ্গা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, অন্যান্য হরতালে কলেজ মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। গতকাল কোন পুলিশ ছিল না।
আনন্দ আরো বলেন, মামলা করার পর আসামি পক্ষ মামলা তুলে নিতে নানাভাবে আমাকে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। বর্তমানে আমি ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে জীবন যাপন করছি।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, কলেজ মোড়ের পরিবেশ এখন শান্ত। দ্রুত বিচারে একটি মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।