কলারোয়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার ওপর হামলা


প্রকাশিত : মার্চ ২০, ২০১৩ ||

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি: কলারোয়ায় হরতাল চলাকালে হামলার শিকার হয়েছেন পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ও ব্যবসায়ী আজারুল ইসলাম। এ সময় তাকে হাতুড়ি পেটাসহ মোটরসাইকেল, টাকা ওমোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ারও অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা পৌর সদরের পশুহাট মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।
হামলার শিকার পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আজারুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, তিনি বাড়ি থেকে একটি ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেলযোগে তার ব্যবসার কাজে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে ১৫/২০ জন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে তাকে লোহার রড় ও হাতুড়ি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে। এ সময় তার পকেটে থাকা রুটি বেকারি ফ্যাক্টরির মালামাল ক্রয় করার ২৯ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় তারা। পরে তার ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলটি ভাংচুর করা হয়। মোটরসাইকেল চালক শামিম (২৮) বাধা দিলে তাকেও পিটিয়ে জখম করা হয়। পরে মাটিতে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আজারুল ইসলামকে পথচারীরা উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শরিফুজ্জামান তুহিন, পৌর কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন বাবু, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মিরাজ হোসেন হাসপাতালে ছুটে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকগণ। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হতে পারে বলে হাসপাতাল সূত্র থেকে জানানো হয়েছে।