বুধহাটায় হাট-বাজারে হাতুড়ে কবিরাজদের দৌরাত্ম্য বেড়েছে


প্রকাশিত : মে ৮, ২০১৩ ||

বুধহাটা প্রতিনিধি: আশাশুনির বিভিন্ন হাটবাজারে হাতুড়ে কবিরাজদের দৌরাত্ম্য বেড়ে গেছে। চিকিৎসার নামে চলছে অপচিকিৎসা। তাঁদের মিথ্যা কথার ফাঁদে পড়ে গ্রামগঞ্জের সহজ সরল মানুষ প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, আসরে হাতুড়ে কবিরাজ বা হেকিম হাজির হয়ে মিথ্যা চটকদার কথায় নিজেদের তৈরি সালসার গুণাগুণ বলতে শুরু করেন। তাঁরা সালসার বোতল তুলে ধরে পেটের ব্যাথা, গ্যাস্টিক, আলসার, বাত, আমাশয়, মেহ, প্রমেহ, ডায়াবেটিস, সর্দি কাশি, অ্যাজমা, যৌনরোগসহ বিভিন্ন জটিল ও কঠিন রোগ নিরাময়ের শত ভাগ গ্যারান্টি দিয়ে ওষুধ বিক্রি করেন। গ্রাম এলাকার সহজ সরল মানুষও খুব সহজে তাদের কথায় বিশ্বাস করে ওষুধ কেনেন।
বুধহাটা গ্রামের বাসিন্দা সুনিল আঢ্য বলেন, কয়েক দিন আগে বাজার থেকে এক কবিরাজের কথায় বিশ্বাস করে ৩৮০ টাকা দিয়ে একটি সালসার বোতল কিনেছি। কিন্তু ওষুধ খওয়ার পর কোনই কাজ হয়নি। কুল্যা ইউনিয়নের বাসিন্দা রফিকুল বলেন, উপজেলা সদরে যেয়ে চিকিৎসা পাওয়া কঠিন বলে হাতুরে কবিরাজদের কাছে যেতে হয়। গত কয়েক দিন আগে বাজার থেকে ওষুধ কিনে খাওয়ার পর কাজ হওয়া তো দূরের কতা, উল্টো অসুস্থ হয়ে পড়ি।
উপজেলার পাইথলী বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কবিরাজ নজরুল ইসলামসহ কয়েক জন লোক গানের আসর বসিয়ে বিভিন্ন রোগের ওষুধ বিক্রি করছেন। আলাপ হলে তিনি বলেন, টিউমার, দন্তরোগ, প্যারালাইসিস, সিফিলিস, গনোরিয়া, একশিরা ও অর্শগেজ রোগের শতভাগ গ্যারান্টি দিয়ে ওষুধ দেয়া হয়।
কুল্যা ইউনিয়নের সমাজসেবক সত্যরঞ্জন বলেন, এসব হাতুড়ি কবিরাজ এলাকার