ব্যাংদহায় ফজলু বাহিনীর তাণ্ডবে কাঠ ব্যবসায়ী শহিদুল সর্বশান্ত


প্রকাশিত : মে ৮, ২০১৩ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: জিডি নং ৫৭৬। ২০০৭ সালের ১১ জুন সদর উপজেলার দক্ষিণ গোবরদাড়ি গ্রামের মৃত নূর আলী সরদারের ছেলে শহিদুল ইসলাম সাতক্ষীরা সদর থানায় এ জিডি করেন।
জিডিতে বলা হয়, শহিদুল ইসলাম সদরের ব্যাংদহা বাজারে সরকারি খাসজমি ইজারা নিয়ে তাতে দোকানঘর বেঁধে কাঠের ব্যবসা করে সংসার নির্বাহ করে আসছেন। কিন্তু তাতে বাধ সাধেন আশাশুনি উপজেলার বাঁকড়া গ্রামের জামাল উদ্দীনের ছেলে ফজলু। সরকারি এ জমির উপর লোভের দৃষ্টি পড়ে ফজলুর। শুরু হয় শহিদুল ইসলামকে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র। মামলা-মোকদ্দমা সবই করা হয়। কিন্তু শহিদুল ইসলামকে সরাতে না পেরে এবার তার দোকানঘর ভাঙচুর ও লুট করলো ফজলু বাহিনী। মঙ্গলবার সকালে ফজলু বাহিনীর সদস্যরা রণ সজ্জায় সজ্জিত হয়ে শহিদুলের দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করে। দোকানে থাকা প্রায় দেড় লক্ষ টাকার আসবাবপত্র ভাঙচুর করে শহিদুল ইসলামকে দোকান থেকে উচ্ছেদ করে ফজলু বাহিনী। সব হারিয়ে শহিদুল ইসলাম এখন সর্বশান্ত। দিনের আলোয় প্রকাশ্যে ফজলু বাহিনীর এ তাণ্ডবলীলা দু’নয়নে দেখা ছাড়া গ্রামবাসীর কিছুই করার ছিলোনা বলে জানান এলাকাবাসী।