কলারোয়া সীমান্তে ৩ পাচারকারী আটক, ভারতে পাচারকালে শিক্ষার্থী উদ্ধার


প্রকাশিত : মে ১৮, ২০১৩ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভারতে পাচারকালে ৫ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় আটক করা হয়েছে এক মহিলাসহ তিন পাচারকারীকে। শুক্রবার দুপুর দুইটার দিকে কলারোয়া সীমান্তের কাঁদপুর গ্রাম থেকে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার ও পাচারকারীদের আটক করে বিজিবি ক্যাম্পে সোর্পদ করে গ্রামবাসী।
উদ্ধার হওয়া শিক্ষার্থীর নাম ময়না খাতুন (১২)। সে যশোর জেলার বড় মেঘলা গ্রামের ইউনুছ আলীর মেয়ে।
আটককৃত পাচারকারীরা হলো খুলনা জেলা সদরের নতুন বাজার এলাকার শহিদুল ইসলামের মেয়ে রুমানা খাতুন (২২), একই জেলার ডালখোলা গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে ইনামুল ইসলাম (২৭) ও আশাশুনি উপজেলার শ্রীপুর আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে সাজ্জাত হোসেন (২৬)।
ময়না জানান, সে তার এলাকার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণিতে লেখাপড়ার পাশাপাশি গান বাজনা করে। সেই সুবাদে পারচারকারীদের সাথে তার পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তাকে ভাল চাকুরি ও মোটা অংকের বেতনের কথা বলে শুক্রবার সকালে কলারোয়া সদরে নিয়ে আসে। তাকে একটি মোটরসাইকেলে করে বেড়ানোর কথা বলে সীমান্তে নিয়ে যায় তারা।
সাতক্ষীরা ৩৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অপারেশন অফিসার মেজর আনারুল মাজাহার ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতদের চলাফেরায় সন্দেহ হলে গ্রামবাসী তাদেরকে আটক করে। পরে তাদেরকে চান্দুড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পে সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনায় চান্দুড়িয়া বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার শাহ আলম বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় একটি পাচার মামলা দায়ের করেছেন।