ভবানীপুর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এসএমসি’র ৫ জন সদস্যের স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগে তদন্ত


প্রকাশিত : মে ২১, ২০১৩ ||

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ভবানীপুর ইউনাইটেড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এসএমসির ৫ সদস্যের স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ভূয়া সভাপতি অনুমোদন করানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার এ ঘটনায় জেলা শিক্ষা অফিসের পরিদর্শক প্রভাষ কুমার দাস ও হাসানুজ্জামান তদন্ত করেছেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর লেখা অভিযোগে বলা হয়েছে, ভবানিপুর হাইস্কুলের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালের ১২ এপ্রিল। এতে অভিভাবক সদস্যপদে হাসান সরদার, তজিবর রহমান মুকুল, সাইদুল ইসলাম, আমিনুল রহমান ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে রাবেয়া খাতুন নির্বাচিত হন। ওই বছর ২১ এপ্রিল তারিখে সভাপতি নির্বাচন উপলক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় নির্বাচিত অভিভাবক সদস্যরা স্কুলের দাতা সদস্য আমিনুল হক কে সভাপতি মনোনীত করেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক রেজুলেশন না লিখে পরবর্তীতে অভিভাবক সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করে তার মনোনীত প্রার্থী তমিজ উদ্দীনকে সভাপতি করে যশোর বোর্ড থেকে অনুমোদন করান। এ ঘটনায় অভিভাবক সদস্যরা বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করলে তদন্তভার পড়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের উপর। জেলা শিক্ষা অফিসার বিষয়টি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেয়ার জন্য পরিদর্শক প্রভাষ কুমার দাস ও হাসানুজ্জামান কে নির্দেশ দেন। সে প্রেক্ষিতে তদন্তকারী দু’কর্মকর্তা সোমবার ভবানিপুর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষকের জালিয়াতির বিষয়টি তদন্ত করেছেন বলে জানা গেছে।