কমনওয়েলথ দেশসমূহের স্বাস্থ্যমন্ত্রী পর্যায়ের সভায় ডা. রুহুল হক: বাংলাদেশ জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অটিজম সংক্রান্ত প্রস্তাবনা গ্রহণে সফল হয়েছে


প্রকাশিত : মে ২১, ২০১৩ ||

পত্রদূত ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ৬৬তম সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে সুইজারল্যান্ডের জেনেভা সফররত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক বলেছেন, অটিজমসহ সকল মানসিক বৈকল্য প্রতিকারে বাংলাদেশে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা কর্মসূচিতে বিশেষ কার্যক্রম হাতে নেওয়া হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী মানসিক সমস্যার কারণে যে আর্থ-সামাজিক ক্ষতি হচ্ছে তা মোকাবিলায় জনগণকে সচেতন করার উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন। মানসিক স্বাস্থ্যের সাথে সম্পর্কিত অটিজম মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী জনমত গড়ে তুলতে বাংলাদেশের ভূমিকা আজ আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত ও স্বীকৃত।

তিনি রোববার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় কমনওয়েলথ দেশসমূহের স্বাস্থ্যমন্ত্রী পর্যায়ের সভায় বক্তৃতাদানকালে একথা বলেন। এবারের সভার প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘মানসিক স্বাস্থ্য: অর্থনৈতিক ও সামাজিক প্রেক্ষিত’।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যাবলী মোকাবিলায় বাংলাদেশে গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা বিশ্বখ্যাত মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ সায়মা হোসেন ওয়াজেদের একনিষ্ঠ প্রচেষ্টা এবং বিভিন্ন বন্ধু দেশের সহায়তায় বাংলাদেশ জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অটিজম সংক্রান্ত প্রস্তাবনা গ্রহণে সফল হয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বের সকল রোগের মধ্যে শতকরা ১৩ ভাগ মানসিক ও স্নায়ুবৈকল্য সংক্রান্ত। ২০১০ সালের হিসাব অনুযায়ী বিশ্বের শীর্ষ ২৫ রোগের মধ্যে এর স্থান ১১তম। মন্ত্রী এই সমস্যা মোকাবিলায় বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে শীঘ্রই কর্মসূচি প্রণয়নের আহবান জানান।

ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক পরে জেনেভার ইটারকন্টিনেন্টাল হোটেলে হার্ডার্ড মিনিস্টারিয়াল লিডারশিপ সভায় যোগ দেন। বিশ্বের সর্বোচ্চ সফল ১২ মন্ত্রীর এই সভায় মন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতে গৃহীত বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।