খুলনায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ কমিটির সভায় নেতৃবৃন্দ: জামায়াত-বিএনপি ও হেফাজতের ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে হবে


প্রকাশিত : মে ২১, ২০১৩ ||

 

দেশের উন্নয়ন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারাকে অব্যাহত রাখতে স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-বিএনপি ও হেফাজতের ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। স্বাধীনতাবিরোধীদের আমলেই সাম্প্রদায়িকতা, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এদেশে বিস্তার লাভ করেছে। স্বাধীনতাবিরোধী সকল শক্তি আজ একত্রিত হয়েছে। এদেরকে প্রতিহত করতে দেশের সকল জনগণকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের পতাকা তলে সমবেত করতে হবে। জামায়াত-বিএনপি ক্ষমতায় আসলেই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তি ও জনগণের উপর অত্যাচার নির্যাতন, হত্যা, অগ্নিসংযোগ ও ধর্ষণ করে এদেশ ছাড়তে বাধ্য করে। সেকারণেই বাঙালি জাতি ও তার ঐতিহ্য রক্ষা করতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই।

সোমবার বিকাল ৬টায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ সামাজিক কমিটির মতবিনিময় অনুষ্ঠানে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ প্রতিরোধ সামাজিক কমিটির যুগ্ম আহবায়ক, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মিজানুর রহমান মিজানের  সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক শেখ হারুনার রশিদ।

বক্তব্য রাখেন সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ সামাজিক কমিটির আহবায়ক, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক মেয়র ও নাগরিক কমিটি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য হাফিজুর রহমান ভূইয়া, মহানগর জাসদ সভাপতি রফিকুল হক খোকন, সিপিবি’র মহানগর সভাপতি এইচএম শাহাদত, ন্যাপ’র জেলা সাধারণ সম্পাদক স. ম. হোসেন, সাম্যবাদী দলের জেলা সভাপতি এফ এম ইকবাল প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি