শ্যামনগর উপজেলা যুবদলের বনভোজন


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৭, ২০১৪ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: শ্যামনগর উপজেলা যুবদলের বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার উপজেলা যুবদলের উদ্যোগে সুন্দরবনের কলাগাছিতে এই বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে দেশের এমন একটি সংকটময় মুহূর্তে যুবদল নেতা-কর্মীদের বনভোজনের বিষয়টি নেতা-কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। বিশেষ করে প্রধান বিরোধীদল বিএনপিসহ অধিকাংশ দল যখন নির্বাচন বর্জন করেছে তার পরের দিন এমন একটি বনভোজনের ঘটনা সবাইকে বিস্মিত করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শ্যামনগর উপজেলা যুবদলের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিবর, সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম দুলুসহ উপজেলার দশটি ইউনিয়নের যুবদল নেতারা বনভোজনে অংশ নেয়। বিরোধীদলীয় চেয়ারপার্সন যখন গৃহবন্দী, অধিকাংশ কেন্দ্রীয় নেতা কারাগারে অথবা পলাতক ঠিক সেই মুহূর্তের এমন আয়োজন নিয়ে শ্যামনগরের বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনসহ সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে সমালোচনা শুরু হয়েছে।
সুন্দরবনের পশ্চিম বনবিভাগের কলাগাছিয়া টহল ফাঁড়ির ইনচার্জ বলেন, প্রায় শতাধিক মানুষ উপজেলা যুবদলের নেতা-কর্মী পরিচয়ে কলাগাছিয়া বেড়াতে।
এ বিষয়ে উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম দুলু জানান, ভাই এটা ঠিক পিকনিক নাম দেয়া যাবে না। সরকার দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দিয়েছে। তাই নির্বাচন পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে সাংগঠনিক বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিতে জঙ্গলকে বেছে নেয়া হয়েছিল। কৃষকদল সভাপতি মুজিবর রহমানসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতবৃন্দও বনভোজনে শরীক ছিল।
যুবদল সভাপতি আজিজুর রহমান জানান, প্রোগ্রামটি আমাদের পূর্ব নির্ধারিত। সময় সুযোগ না থাকায় এবং নেতা-কর্মীরা ব্যস্ত থাকায় সোমবারই পরিকল্পনাটি বাস্তবায়ন করা হয়।