শ্যামনগরে ঔষধি গাছের উপকারিতা বিষয়ক কর্মশালা


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৯, ২০১৪ ||

রনজিৎ বর্মন, সুন্দরবনাঞ্চল: ব্রাম্মী শাক খেলে শিশুদের ব্রেনের উপকার হয়। এ কারণে ব্রাম্মী শাককে ব্রেন টনিক বলা হয়। কলমী শাক খেলে মায়েদের বুকের দুধ বেড়ে যায়। সর্দ্দি কাশির জন্য তুলশীর পাতা খুব ভাল। মধু দিয়ে তুলশীর পাতা খেলে সর্দ্দি কাশি ভাল হয়।
বুধবার শ্যামনগর উপজেলার ভূরুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঔষধি গাছের উপকারিতা বিষয়ক কর্মশালায় বক্তারা এ কথা বলেন।
হায়বাতপুর আইসিএম কৃষি ক্লাব ও কৃষি নারী সংগঠনের আয়োজনে এবং বারসিক রির্সোস সেন্টারের সহায়তায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বক্তারা থানকুনি পাতা, আদাবরুন শাক, বাসক পাতা, মাটি ফোঁড়া শাক, কালবিছে, ওলটকম্বলসহ বিভিন্ন শাক সবজি ও ঔষধি গাছের উপকারিতা তুলে ধরেন।
বক্তারা আরও বলেন, বাড়ির আশেপাশে এমন অচাষকৃত শাকসবজি ও ঔষধি বৃক্ষ আছে যেগুলোর উপকারিতা আমরা জানি না। বক্তারা বেশি বেশি করে ঔষধি বৃক্ষলাগানোর আহব্বান জানান ।
অনুষ্ঠানে চিকিৎসা পদ্ধতি ও ঔষধি গাছের গুণাগুণ সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন শ্যামনগর আকরাম হারবাল সেন্টারের কবিরাজ জাহাঙ্গির আলম ও হায়বাতপুর কৃষি নারী সংগঠনের সভাপতি ফরিদা আক্তার। অতিথির বক্তব্য রাখেন রির্পোটার রনজিৎ বর্মন, বারসিক শ্যামনগর সেন্টারের কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ জোয়ারদ্দার, জেসমিনয়ারা, গৃহবধূ মাসুমা আক্তার, মেহেরুণনেছা, রহিমা বেগম প্রমুখ।
কর্মশালায় আলোচনা শেষে আয়োজক সংগঠনের পক্ষ থেকে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ফ্রি কৃমিনাশক ঔষধ বিতরণ করা হয়।