জেলায় জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডবে ক্ষয়ক্ষতি ৬ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে


প্রকাশিত : জানুয়ারি ২৫, ২০১৪ ||

শেখ তানজির আহমেদ/আব্দুস সামাদ: জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডবে জেলায় প্রায় ৬ কোটি ১২ লক্ষ ২ হাজার ২শ ৫ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে ঘর-বাড়ি, দোকান-পাট, গোডাউন, মোটরসাইকেল, ট্রাক, নছিমন এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অফিস ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় প্রায় ৫ কোটি ৭২ লক্ষ ২ হাজার ২শ ৫ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া প্রায় ৪০ লক্ষ টাকার বিভিন্ন প্রকার গাছ কেটে সাবাড় করেছে জামায়াত-শিবিরের দুর্বৃত্তরা। জেলা পুলিশ প্রশাসন এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
মূলত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত করতে জামায়াত-শিবির ১৮ দলের হরতাল-অবরোধের সুযোগ নিয়ে জেলায় এ ধ্বংসযজ্ঞ চালায়।
জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) তথ্য অনুযায়ী, জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডবে জেলার দেবহাটা উপজেলায় সবচেয়ে বেশি, ২ কোটি ৭২ লক্ষ ৪০ হাজার ৯০৫ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া তালা উপজেলায় সবচেয়ে কম, ৩ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জেলার অন্যান্য ৫টি উপজেলার মধ্যে সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ৯০ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা, কলারোয়া উপজেলায় ৪৬ লক্ষ ২২ হাজার ১শ টাকা, কালিগঞ্জ উপজেলায় ৭০ লক্ষ ৩০ হাজার ২শ টাকা, শ্যামনগর উপজেলায় ২৮ লক্ষ ৯৯ হাজার টাকা ও আশাশুনি উপজেলায় প্রায় ৬০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে, সাতক্ষীরা বনবিভাগের ১৫ লক্ষ টাকা, জেলা পরিষদের ২০ লক্ষ টাকা এবং সড়ক ও জনপদ বিভাগের ৫ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে সাবাড় করেছে জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা।
সাতক্ষীরার পুলিশ চৌধুরী মঞ্জুরুল কবীর এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সহিংসতার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। সাতক্ষীরার পরিস্থিতি এখন শান্ত। সবকিছুই পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।
প্রসঙ্গত, জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্তদের ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন।