দেবহাটা উপজেলা শিবিরের সম্পাদকসহ তিন নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : January 26, 2014 ||

ডেস্ক রিপোর্ট: আওয়ামী লীগ নেতা আবু রায়হান হত্যাকাণ্ডে জড়িত দেবহাটা উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাধারণ সম্পাদকসহ শিবিরের তিন নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে দেবহাটার কুলিয়া ও শনিবার বিকেলে কালিগঞ্জের নলতা বাজার থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া গ্রামের আকবর হোসেনের ছেলে ও উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম (২৫), কালিগঞ্জ উপজেলার পূর্ব নলতা গ্রামের হোসেন মোড়লের ছেলে লতিফ মোড়ল (২৮) ও কাজলা গ্রামের আদর আলীর ছেলে ছিদ্দিকুর রহমান (২৬)।
এদিকে ক্ষুব্ধ জনতা শনিবার দুপুরে কালিগঞ্জ উপজেলার ইন্দ্রনগর গ্রামের জামায়াত নেতা মাওলানা আকবর আলী ও পূর্ব নলতা গ্রামের ওসমান গণির বাড়ি ভাঙচুর করেছে।
দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারক চন্দ্র বিশ্বাস জানান, শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার কুলিয়া গ্রামের জামায়াত কর্মী আশরাফুল ইসলামের ছেলে ছাত্র শিবিরের সক্রিয় কর্মী মারুফ হাসানকে (২৪) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সে গত ২১ নভেম্বর আওয়ামী লীগ নেতা আবু রায়হান হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকা ছাড়াও আরো কয়েকজনের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শুক্রবার রাত ৮টার দিকে কুলিয়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাধারণ সম্পাদক ও সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ছাত্র আবুল কালামকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে পুলিশ, সাংবাদিক ও সাধারণ জনগণের সামনে (এক্সট্রা জুডিশিয়াল তদন্ত) আওয়ামী লীগ নেতা আবু রায়হানকে কোপ মারার কথা স্বীকার করে। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে হরতাল ও অবরোধ চলাকালে কয়েকটি সহিংসতার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। তাকে নিয়ে অস্ত্র অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আযম খান জানান, নাশকতা সৃষ্টির প্রস্তুতিকালে শনিবার বিকেলে নলতা বাজার এলাকা থেকে লতিফ ও ছিদ্দিককে গ্রেপ্তার করা হয়।