ইজারার মেয়াদ শেষ হলেও জমি ফেরত না দেয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৩০, ২০১৪ ||

ডেস্ক রিপোর্ট: ইজারার মেয়াদ শেষ হলেও প্রভাবশালী মহল ধর্মীয় সংখ্যালঘু একটি পরিবারের ১২৫ একর জমি ফেরত দিচ্ছে না। বরং জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া কাগজ তৈরি করে তারা ওই জমি দখলে নেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। বুধবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন আশাশুনি উপজেলার পাইথলি গ্রামের মৃত সূর্যকান্ত রাহার ছেলে অসিত কুমার রাহা।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে অসিত কুমার রাহা বলেন, আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের গুড়গুড়ি এবং বাউশুলি মৌজায় তার ১২৫ একর জমি রয়েছে। এরমধ্যে গুড়গুড়ি মৌজায় ৪৮ একর এবং বাউশুলি মৌজায় ৭৭ একর সম্পত্তি রয়েছে। তিনি ওই জমি বুধহাটা গ্রামের নুর মোহাম্মাদ মোল্যার ছেলে মঞ্জুরুলকে বার্ষিক হারির বিনিময়ে ২০০৩ সালে থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ১০ বছরের জন্য ইজারা প্রদান করেন। ইজারা দেওয়ার পর থেকে প্রতিবছর টাকা নিতে তার অনেক কষ্ট পেতে হয়েছে।
অসিত কুমার রাহা আরও বলেন, ২০১৩ সালের ডিসেম্বর মাসে ইজারার মেয়াদ শেষ হলে আমি নিজে ঘের করার জন্য মঞ্জুরুলের কাছে জমি ফেরত চাই। কিন্তু মঞ্জুরুল আমাকে জমিতে ঘের করতে দেবে না বলে নানাভাবে ষড়যন্ত্র শুরু করে। পরে বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পারি সাবেক চেয়ারম্যান হাসেম ও তার ভাই মঞ্জুরুল জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া কাগজ তৈরী করে ওই জমি দখলে নেওয়ার পায়তারা করছে। তিনি আরও বলেন, আমরা ধর্মীয়ভাবে সংখ্যালঘু। আমার প্রতিপক্ষ হাসেমের রয়েছে বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী। তারা আমার সম্পত্তি দখল করে আমাকে দেশ ছাড়া করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।