সেই দিনের ঈদ/ মোস্তাফিজুর রহমান


প্রকাশিত : জুলাই ২১, ২০১৫ ||

ধরাতে ঘুরিয়া ফিরিয়া আনিল জগতের পরোয়ার
রোজার যে মাস বিদায় বেলা ঈদ এলো সেই বার।
দক্ষ ইমানী পাবেউ কি তাহলে সেই আনন্দের দিনে
পাপের বোঝা ঢেলে দিয়ে তারা নাজাতের রহর কিনে।
নতুন পোশাকে যাদেরই দেহ ভরিয়া উঠিছে ছেয়ে
ঈদ আনন্দে ঐ দিনই তারা সিমাই শরবত খেয়ে।

অতি উৎসবে দলে দলে চলে নগরের ঈদ গায়ে
মিলিত হবে নব খুশিতে ঈদ ময়দানে যেয়ে।
বস্ত্র বাহারে সাজিয়া সবে পথেও প্রান্তে চলে
দুর্গত এলাকার দৃশ্য দেখিলে ভাসে চোখ অশ্র“ জলে।
আকাশ বন্যায় ভেসে গেছে হায় লাখো মানুষের ঘর
তাকিয়ে দেখিলে মনে হয় যেন বুড়িগঙ্গার চর।
ঈদের জামাত করেছে তারা ডোবা ময়দান সেঁচে
ভরা বিকালে আবার আসিল জোয়ারের পানি নেচে।
কত না শিশুর খাবার জোটেনি ঈদুল ফিতর দিনে
কে দেবে তাদের ঐ সে দিনে নতুন পোশাক কিনে।
ঈদ উৎসবে সাহায্য চেয়েছে কত মানুষের কাছে
আকাশ তলে কেটেছে রাত্রি আর কত অভাব আছে।
লেখ না এবার হে কবি তুমি ব্যাকুল মানুষের কথা
চির বঞ্চিত অসহায় সমাজের লাঞ্ছিত চিহ্নের ব্যথা।
খাবার জোটেনি কত পরিবারের ঈদের দিনে ও রাতে।
ভেসে গিয়েছিলো তাদের বাড়িঘর সেই বন্যার স্রোতে।
পাবে কি স্বস্তি ঈদের দিনে এসব কাহিনী শুনে।
সেই দিনের ঈদ করেছিলো তারা অভাবের দিনগুনে।