ঈদে নুশরিকা অদ্রি’র দুটি কবিতা


প্রকাশিত : জুলাই ২১, ২০১৫ ||

ঈদের খুশি
ঈদ এসেছে আজ
অনেক দিন পর;
আবার আসবে ঈদ
একটি বছর পর।
আবার এসেছে ঈদ
ওদিকে বাড়ি তৈরির জন্য ওরা বসাচ্ছে ভিত
অপরদিকে সকাল সকাল মোরগ ডাকে কক্ কক্
ঈদ মোবারক বলাই যাক।
এই দিনে বাবা-মায়ের হাতে
কেউ খায় না মার;
এটা আমরা সবাই জানি;
বলার দরকার নেই আর।
এই দিনেতে খাবো
মিষ্টি মাংস খাবার;
এই দিনে কারো মুখ থেকে যায় না হাসি
এটাই হলো ঈদের খুশি।
ঈদ
ঈদ যেনো কোনো
সাধের মত,
যখন দেখি চাঁদ
রাতের আকাশ ঝলমল করে
তারার ছন্দমাত।
ঈদ যেনো হায়;
ঈদের আশায়;
বসে আছি আজ ঘরে
সার বেলা হায়;
রোজা রেখে তাই;
অন্তরের পশুত্ব যায় মরে।
রাতের বেলা ধুমধাম বাজি
পিচ্চিগলো যেনো মহাপাজি!
পিচ্চিগুলোর দুষ্টুমিতে
ঘুমটাও আজ হয় না।
বাজির শব্দ শুনে যেনো মন
ঘরেতেই আর রয় না।
দেরি করে শুয়ে
তাড়াতাড়ি উঠে
দেই জুড়ে এক কান্না
ঈদের জন্য
বাড়ি সরগম
করিতে হবে আজ রান্না।
নতুন পোশাক পরে যেনো সব;
যায় পড়িতে নামাজ।
ঈদের সালামী বেশি পাবো আজ
এটাই মোদের কাজ।
সারাবেলা আজ
ছুটাছুটি কাজ;
রাত্রিতে ঘুম চোখে ধরে না;
বাজি ফোটাবে, বাজি ফোটাবো
মাথা আর কাজ করে না।
ঘুম চোখে তাই;
ছাদে চলে যাই
বাজি ফোটাবো হাই;
আতশ বাজি, পটকা বাজি চকলেট বাজি চাই
একাজ হলো, ওকাজ হলো
ছুটে চলে যাই ঘরে;
বিছানায় শুয়ে
ফ্যানটা ছেড়ে;
দিই ঘুম জুড়ে।