আইনশৃঙ্খলা নিয়ে জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের উদ্বেগ!


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭ ||

জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে বিবৃতি দিয়েছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেছেন, সাতক্ষীরা জেলার ৭(সাত) উপজেলায় পুলিশ নাশকতার নামে গ্রেপ্তার বাণিজ্য ও নিরীহ জনতার হয়রানি করছে। ফলে নিরীহ মানুষ আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে বাড়ি ছাড়া। সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতি এড. আব্দুল হামিদ পুলিশ দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে নিরীহ মানুষ যেন বৃথা হয়রানি না হয় সে ব্যাপারে তিনি ভাষণে সতর্কবার্তা প্রকাশ করেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আইজিপি একে এম শহিদুল হক বিভিন্ন বক্তব্যে নিরীহ মানুষ যেন হয়রানি না হয়, সে ব্যাপারে পুলিশ বাহিনীর প্রতি আহবান জানান।
সাতক্ষীরা রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে যে, ইদানিং কিছু অসৎ পুলিশ কর্মকর্তা নাশকতার নামে গ্রেপ্তার বাণিজ্য অব্যাহত রেখেছে। ফলে বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার ও ১৪ দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও জলাঞ্জলি হচ্ছে।
কথিত আছে ঘেরের মাছ, গাছ, জমি, গরু বিক্রি বা বিদেশ থেকে কেউ টাকা পাঠালে এলাকার দালাল চক্রের সহায়তায় গ্রেফতার ও ক্রস ফায়ার দেওয়ার হুমকি দিয়ে সর্বস্ব লুটে নিচ্ছে। কলারোয়া থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুল ওহাব কে নাশকতার মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করেছে। অধ্যক্ষ আব্দুল ওহাব ঝিকরগাছা উপজেলার একটি শ্রেষ্ঠ কলেজে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। ঝিকরগাছা উপজেলার নির্বাহী অফিসার অধ্যক্ষ আব্দুল ওহাব সাহেবের কাজে সন্তুষ্ট হয়ে তাকে পুরস্কৃত করেছেন।
গ্রেপ্তার বাণিজ্য বন্ধের জন্য কলারোয়া থানার ১০জন চেয়ারম্যান স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগপত্র ইতোমধ্যে আইজিপি একেএম শহিদুল হক বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে। যার তদন্ত কাজ অব্যাহত আছে। তবে তদন্ত কর্মকর্তা খোরশেদ আলম (এসপি) তদন্ত কাজে বাধা পেয়ে সাতক্ষীরায় ফিরে আসেন। গ্রেপ্তার বাণিজ্য, জনতার হয়রানি তদন্ত কাজ অব্যাহত সংক্রান্ত একটি সংবাদ ৩০-১২-২০১৬ ইং সাতক্ষীরার দৈনিক পত্রদূত, ১৯-০১-২০১৭ ইং দৈনিক দক্ষিণের মশালে প্রকাশ পায়। উল্লেখ যে, গত ২১-০৮-২০১৬ ইং কলারোয়া থানায় যোগদানের পর ওসি এমদাদুল হক ও এসআই আনোয়ার, এসআই পিন্টু লাল, এসআই মহিদুল, এসআই সাইদুল, এসআই রুবেল, এসআই রতন হাজরা, কনষ্টেবল রিয়াজ সহ নাশকতার নামে নিরীহ মানুষ হয়রানি ও গ্রেপ্তার বাণিজ্য অব্যাহত রেখেছে। ফলে আইন শৃঙ্খলার মারাত্মক অবনতি ঘটেছে।
সাতক্ষীরা জেলার পুলিশ কর্তৃক জনগণ নিগৃহীত, হয়রানি, ক্রস ফায়ার হুমকি গ্রেপ্তার বাণিজ্য বন্ধের জন্য মাহমান্য রাষ্ট্রপতি এড. আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল, র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, আইজিপি একে এম শহিদুল ইসলামের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিভিন্ন রাজনৈতক দলের নেতারা। প্রেস বিজ্ঞপ্তি