অনন্য রাজনীতিবিদ ও বাঙালির বীর সন্তান


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৭ ||

মন্ময় মনির
মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। একজন অনন্য রাজনীতিবিদ ও বাঙালির বীর সন্তান। সাহিত্য-সংস্কৃতির নান্দনিক পথযাত্রী ও পৃষ্ঠপোষক। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে ঝাঁপিয়ে পড়েন। স্বাধীন করেন বাংলাদেশ। সাতক্ষীরার ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সন্তান তিনি। ১৯৭১ থেকে অদ্যাবধি দেশের প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে তিনি সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের তিনি ভাইস চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছিলেন। পিতা ইস্যু মিয়া একজন অনন্য সমাজসেবক ছিলেন। বর্তমানে তিনি সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির দায়িত্ব অত্যন্ত দক্ষতার সাথে পালন করছেন। তিনি রাজনীতি-সমাজসেবার ক্ষেত্রে অনন্য স্বাক্ষর রেখে চলেছেন।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ‘নৌকা’ প্রতীক নিয়ে সাতক্ষীরা-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত হওয়ার পূর্বে যেমন দু:খী মেহনতি মানুষের পাশে ছিলেন তেমনি এখনো গরিব, দু:খী মেহনতি মানুষের উপকারের জন্য ছুটে যান সাতক্ষীরার বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলে। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কবিতা পরিষদ, বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদসহ বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সাহিত্য সংগঠনকে অর্থ ও পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেন। ক্রীড়া ক্ষেত্রেও মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’র রয়েছে অতুলনীয় অবদান।
মীর মোস্তাক আহমেদ রবি সাতক্ষীরার গণমানুষের নেতা। জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মেহনতি মানুষের নেতা। তিনি কৃষকের নেতা, মুটে ও মজুরের নেতা, শ্রমজীবি মানুষের নেতা। শাসক হওয়া তাঁর মোটেও পছন্দ নয়। তিনি শাসকের ভূমিকায় অবতীর্ণ না হয়ে বন্ধু ও সেবকের মতোন কাজ করতে ভালোবাসেন এবং তাই-ই তিনি করছেন।
সাতক্ষীরা-২ আসনে অর্থাৎ সদর উপজেলাতে মোট ১৪টি ইউনিয়ন আছে। প্রতিটি ইউনিয়নের রাস্তা সংস্কার ও পাকাকরণে মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’র আন্তরিকতা স্পর্শ করেছে। প্রতিটি ইউনিয়নেই তাঁর গ্রহণযোগ্যতা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। সাহিত্য-সংস্কৃতি-রাজনীতি-ক্রীড়াসহ সকল ক্ষেত্রে তাঁর অবদান অতুলনীয়। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিশেবে তিনি জাতির পিতার নামে ‘বঙ্গবন্ধু পাঠাগার’ স্থাপন করেছেন। বাঙালি সমাজের সকল ক্ষেত্রে মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’র বলিষ্ঠ উদ্যোগ সমাজকে অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। সাতক্ষীরাবাসীর একটি বৃহৎ অংশ মীর মোস্তাক আহমেদ রবিকে আগামী সংসদ নির্বাচনেও সংসদ সদস্য হিশেবে দেখতে চায়। আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজিতে রয়েছে তাঁর মাতৃভাষা বাংলা এর মতোন সমান দক্ষতা। এজন্য আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও তাঁর পদার্পণ ঘটেছে সাবলীলভাবে।
মীর মোস্তাক আহমেদ রবি শুধু সাতক্ষীরার নন সমস্ত বাঙালি জাতিরই গর্বিত ও বীর সন্তান। সুগভীর জাতীয়তাবোধ ও দেশপ্রেম সৃষ্টিতে তাঁর মতোন নেতা সাতক্ষীরাবাসী তথা দেশের জন্য আবশ্যক। রাজনৈতিক দর্শনে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারন করেছেন যেমন লালনও করছেন তেমন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে তাঁর সাহসী পদক্ষেপ আমাদের অনুপ্রেরণা জোগায়। সাতক্ষীরার আওয়ামী রাজনীতিকে শক্তিশালী করতে এবং সাতক্ষীরার সকল ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি অপরিহার্য।
লেখক: মন্ময় মনির, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, কলারোয়া উপজেলা শাখা, সাতক্ষীরা