ব্রহ্মরাজপুরে পিতার আগুনে পুড়ে ছাঁই হলো পুত্রের দোকান!


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৭ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: ব্রহ্মরাজপুরে পিতার দেয়া আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়েছে পুত্রের দোকান! দোকান ও বসত ঘরে নিজে আগুন দিয়ে ছেলেকে ফাঁসাতে গিয়ে গ্রামবাসির হাতে ধরা খাওয়ার আগেই পালিয়ে যায় পিতা। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের দহাকুলা পূর্বপাড়া গ্রামে। জানা যায়, দহাকুলা পূর্বপাড়া গ্রামের মো. ওয়াজেদ আলীর পুত্র রেজাউল ইসলাম গত ৮মাস পূর্বে তার স্ত্রীকে ভয় দেখিয়ে তিন শতক জমি লিখে নেয়। জমিতে বসত ঘর ও মুদি দোকান রয়েছে। এই জমি নিয়ে বিরোধ হলে স্ত্রী আনোয়ারা খাতুন থানায় সম্প্রতি অভিযোগ দিলে জমিটি পুত্র লিটন হোসেন ও কন্যার নামে লিখে দেবে বলে দুইশত পঞ্চাশ টাকার ষ্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা ও না দাবীপত্র দেয় রেজাউল ইসলাম। এরপর থেকেই লিটন দোকান ও বসত ঘর ভোগ দখল করে আসছিল। জমিটি তাদের নামে লিখে দেবে না বলে বেশ কিছুদিন সে পুত্রকে ভিটে-বাড়ি থেকে তাড়ানোর চেষ্টা চালাতে থাকে। এরই জের ধরে সোমবার রাত এগারটার দিকে রেজাউল কৌশলে পুত্রের দোকান ও বসত ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় গ্রামবাসি টের পেয়ে তাকে ধাওয়া করলে সে পালিয়ে যায়। এরই মধ্যে দোকানের মালামাল ও বসত ঘরের জিনিসপত্র ভষ্মীভূত হয়। এতে প্রায় অর্ধ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। গ্রামবাসি পুলিশের সামনে সত্য ঘটনা তুলে ধরে রেজাউলের বিচার দাবী করে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় লিটন বাদী হয়ে তার পিতাকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।