আসামীদের হুমকীতে ফিরতে বাড়ি ছাড়া তালা উপজেলার একটি পরিবার!


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৭ ||

তালা (সদর) প্রতিনিধি: তালায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করার পরও আসামীদের হুমকীর দীর্ঘ প্রায় এক মাস পালিয়ে বেড়াচ্ছে এক পরিবরের ৩ সদস্য। ঘটনাটি ঘটেছে, তালা উপজেলার খলিলনগর গ্রামে গত ২৬ জানুয়ারি। এ ঘটনায় দীর্ঘ ২৪ দিন পরে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি তালা থানায় একটি মামলা হয়েছে। ঘটনার বিবরণে জানাযায়, খলিলনগর গ্রামের মো. আবুল হোসেন ওরফে হোসেন শেখের সাথে একই গ্রামের মৃত একিম শেখের পুত্রদের জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। উক্ত বিরোধের জের ধরে গত ২৬ জানুয়ারি বিকালে আসামী আব্দুল্ল¬াহ শেখ (৩০), সাইফুল্য¬াহ শেখ (২৫), মেহেরুল¬াহ শেখ (২২) সহ ৫/৭ জন স্বসস্ত্র ব্যক্তি আবুল হোসেনের বসত বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করে দেড় লক্ষাধীক টাকার ক্ষতি করে। এ সময় আবুল হোসেন শেখ (৪০) ও তার শিশু কন্যা সুমা (৯), স্ত্রী আকলিমা বেগম (৩৩) কে বেদম মারপিট করে মুমুর্ষ অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। পরে প্রতিবেশীরা তাদেরকে উদ্ধার করে তালা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি থাকায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানন্তর করেন।
মামলার বাদী আকলিমা বেগম জানান, তার শিশু কন্যা সুমার বাম হাতটি দুর্বৃত্তরা ভেঙ্গে দিয়েছে, আমার বাচ্চাটি দীর্ঘ প্রায় ১ মাস চিকিৎসাধীন, ব্যথায় কাতর, স্কুলে যেতে পারছেনা, ফলে লেখাপড়া বন্ধ হতে চলেছে, আরও কত দিন এভাবে থাকতে হবে জানিনা ! তিনি আরও বলেন, স্বামীকেও এমন বেশী মারপীট করে মেরুদন্ডের হাড় ভেঙ্গে যাওয়ায় সে এখন পঙ্গু হতে চলেছে। সে এখন হাটতে-বসতে পারে না। ডাক্তার তাকে অপারেশনের জন্য ঢাকার পিজি’তে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু আমরা বর্তমানে আসামীদের বিভিন্ন প্রকার হুমকীতে বাড়িতে উঠতে পারছিনা, ফলে টাকা-পয়সা যোগাড় করতে না পেরে চিকৎসা করাতে পারছি না। অসহায় আকলিমা বেগম গতকাল ১৯জানুয়ারী রবিবার তালা সদর প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে সাংবাদিকদের নিকট অসহায়াত্বের কথা বর্ণনা করতে গিয়ে কান্না জড়িত কন্ঠে সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রশাসনের উর্দ্ধত্বন কর্তৃপক্ষের নিকট ন্যায় বিচার দাবি জানান।
এ ব্যাপারে তালা থানা অফিসার ইনচার্স (ওসি), মো. হাসান হাফিজুর রহমান জানান, গত দুদিন আগে এজাহার পাওয়ার পর মামলা নিয়েছি  আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।