সুন্দরবনে নব্য বনদস্যু রবিউল বাহিনীর আবির্ভাব: দুই জেলে অপহরণ


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭ ||

শ্যামনগর (সদর) প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা রেঞ্জ পশ্চিম সুন্দরবনে নব্য বনদস্যু রবিউল বাহিনীর আবির্ভাব ঘটায় বনজীবিরা নতুন করে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। রবিউল বাহিনীর প্রধান রবিউল গাজী অপর ৫ সহযোগীকে নিয়ে সপ্তাহখানেক ধরে সুন্দরবনে বনদস্যুতায় নবযাত্রা শুরু করেছে বলে সূত্রটি নিশ্চিত করেছে। সে শ্যামনগর উপজেলায় কালিঞ্চী গ্রামে দাউদ গাজীর ছেলে বর্তমানে কালিগঞ্জ থানায় বসন্তপুর গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে যাতায়াত করে সূত্রটি জানাই। গহিন সুন্দরবনে বাটাঙের চর ও দল বেলের চর এলাকায় প্রায় এ বাহিনীর আনাগোনা জেলেরা জানায়। রবিউল বাহিনীর কব্জায় ২টি বন্দুক, ২টি পাইপ গান ও একটি এয়ারগান নিয়ে সুন্দরবনে জেলে বাওয়ালিদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করে মুক্তিপণ আদায় করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য মীরগাং গ্রামে অমেদ আলী গাজীর ছেলে মাজেদ গাজী এবং পাশ্বেখালী গ্রামে মুনসুর গাজীর ছেলে আলীম গাজীকে গত ২৪ ফেব্রুয়ারী সুন্দরবনে ফিরিঙ্গী খাল থেকে অপহরণ করেছে। এ ঘটনায় রবিউল বাহিনী জেলেদের মুক্তির জন্য এক লাখ টাকা দাবি করেছে সূত্রটি জানায়।
রবিউল বাহিনী প্রধান রবিউল সুন্দরবনে অপর বনদস্যু জোনাব বাহিনীর আপন শ্যালক। জোনাব বাহিনীতে দীর্ঘদিন কাজ করে বর্তমানে নিজেই বাহিনী গঠন করেছে। পশ্চিম সুন্দরবনে জোনাব বাহিনী, কবিরাজ বাহিনী ও রবিউল বাহিনী জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করছে জেলেরা জানাই। জোনাব বাহিনীর প্রধান জোনাব ভারতে কুমিরমারি এলাকায় বসবাস করছে সূত্রটি জানায়।