চুকনগরে আবাসিক হোটেলে নিহত অজ্ঞাত মহিলার পরিচয় মিলেছে


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭ ||

চুকনগর (খুলনা) প্রতিনিধি: চুকনগরে গাজী আবাসিক হোটেল থেকে মহিলার লাশ উদ্ধারের ঘটনার ৭দিন পর তার পিতৃ পরিচয় পাওয়া গেছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডুমুরিয়া থানার এসআই রোতনুজ্জামান জানায় নিহত মহিলার নাম মুক্তা বেগম (৩২)। তার পৈত্রিক নিবাস খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা উপজেলার ভান্ডারকোট গ্রামে। মুক্তা বেগমের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। পিতার পরিবারে তারা ৭বোন ১ভাই। এছাড়া তিনি ছিলেন স্বামী পরিত্যক্তা। তবে তদন্তের স্বার্থে তার স্বামীর নাম পরিচয় স্থানীয় সাংবাদিকদের জানানো হয়নি। এ ঘটনায় মাগুরাঘোনা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আযমকে মামলার বাদী করা হয়েছে। যার নং-২৪। হোটেল ম্যানেজার সাগর হোসেন বাপ্পী জেল হাজতে রয়েছে। উলে¬খ্য গত ২১ ফেব্র“য়ারী রাত ১০ টার দিকে চুকনগর শহরের গাজী আবাসিক হোটেলের ২য় তলার ৩নং কক্ষ থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ের ঐ মহিলাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে ডুমুরিয়া থানা পুলিশ। জানাযায় তারা ২০ফেব্র“য়ারী রাত সাড়ে ৯ টার দিকে সাকিব ও শিখা ছদ্দনামে নিজেদের স্বামী- স্ত্রী পরিচয় দিয়ে হোটেলের কক্ষটি ভাড়া নেয়। সকালে নাস্তা আনার কথা বলে পুরুষ লোকটি বাইরে চলে যায়। কিন্তু সারা দিনের মধ্যে তাদের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে বিকালে হোটেল ম্যানেজার কক্ষের তালা ভেঙ্গে ফেলে উক্ত মহিলাকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে।