চুকনগরে দীর্ঘদিন পর সাংগঠনিকভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বিএনপি


প্রকাশিত : মার্চ ৪, ২০১৭ ||

চুকনগর (খুলনা) প্রতিনিধি: চুকনগরে দীর্ঘদিন পর সাংগঠনিকভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। অনেক দিন পর নেতা কর্মীদের মাঝে প্রাণ চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে শহরের প্রতিটি স্থানে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে ‘আটলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির দীর্ঘদিনের বিরোধ মিমাংসা’ এই শিরোনামকে নিয়ে। আবার অনেক কর্মী উচ্চ পর্যায়ের নেতাদের স্বাগত জানিয়েছেন। তবে এ কথা সত্য যে শুধুমাত্র ডুমুরিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি খাঁন আলী মুনছুর ও নব ঘোষিত খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোল্যা মোশাররফ হোসেন মফিজের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার এটা সম্ভব হয়েছে।
জানাযায়, গত ২মার্চ ডুমুরিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আটলিয়া ইউনিয়ন বিএনপি ও তার অঙ্গ-সংগঠনের মধ্যে বিরাজমান সকল লবিং গ্র“পিং ও বিভেদ ভেদাভেদ দূর করাব জন্য অত্র ইউনিয়নের নেতাকর্মীকে জরুরী ভিত্তিতে উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে ডেকে পাঠান। সেখানে দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত কয়েক দফা রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়। বৈঠকে নেতাকর্মীদের সকল লবিং গ্র“পিং,ভেদাভেদ ভুলে দলীয় প্রয়োজনে সকলকে এক সাথে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়। এখানে দলের সকল কর্মসূচী একসাথে পালন করার নির্দেশও দেয়া হয়। তাছাড়া আটলিয়া ইউনিয়ন বিএনপিকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে খুলনা জেলা বিএনপির নব ঘোষিত কমিটির সভাপতি এসএম শফিকুল আলম মনা এবং সাধারণ সম্পাদক কুদরতে আমীর এজাজ খান ও সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল হাসান বাপ্পীর নির্দেশে ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ সালামকে স্বপদে বহাল করা হয়েছে এবং এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সরদার দৌলত হোসেনকে ধানের শীষের একক প্রার্থী হিসাবে ঘোষনা করা হয়েছে। কর্মীদের উদেশ্যে বলা হয়েছে আগামী আন্দোলন সংগ্রাম সহ সকল কর্মসূচীতে হিংসা বিদ্বেষ ভুলে ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম,সাধারণ সম্পাদক সরদার দৌলত হোসেন, বিএনপির নেতা ও আটলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিএম হাবিবুর রহমান হবির নেতৃত্বে এক সাথে কাজ করতে হবে। তা না হলে প্রতিপক্ষ সুযোগ পেলে আপনাদের ক্ষতি করার চেষ্টা করবে। নেতৃবৃন্দ বলেন ৯০এর দশক হতে ডুমুরিয়া উপজেলা উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও খুলনা জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি মোল্যা আবুল কাশেমের সহযোগীতায় হাটি হাটি পা পা করে চুকনগরে সাবেক বিএনপির নেতা মরহুম সিরাজুল ইসলাম মোড়ল, সরদার রুহুল আমীন ও এমএম শাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে মাত্র গুটি কয়েক কর্মী নিয়ে আটলিয়া ইউনিয়নে বিএনপির পথ চলা শুরু হয়। তার পর থেকে যত দিন যায় বিএনপির আদর্শে দলে দলে লোক বিএনপিতে যোগদান করে। আজ চুকনগরের প্রায় ৮০শতাংশ লোক বিএনপির পতাকাতলে আশ্রয় নিয়েছে। তাই বিএনপির ভিতরে কোন বিভেদ সৃষ্টি না করে সকলকে একযোগে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য জোরালো আহবান জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ডুমুরিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি খাঁন আলী মুনছুর ও নব ঘোষিত খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোল্যা মোশাররফ হোসেন মফিজ, সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী আব্দুল হালিম,জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক খান ইসমাইল হোসেন, শেখ হাফিজুর রহমান, মোল্যা কবির হোসেন, জহুরুল হক, এফ এম গোলাম সরোয়ার, আব্দুস সালাম মহলদার, শেখ সরোয়ার হোসেন, সরদার দৌলত হোসেন, এফ এম রফিকুল ইসলাম, প্রভাষক মঞ্জুর রশিদ, আজিজুর রহমান খোকন, মোড়ল আমিনুর রহমান, মোল্যা মনিরুল ইসলাম, প্রভাষক আব্দুর রাজ্জাক, প্রভাষক মনিরুল হক, কামরুল ইসলাম, তাজানুর রহমান, হাসানুজ্জামান মোড়ল, মোস্তাক আহম্মেদ, মুরাদুজ্জামান সবুজ, শেখ মফিজুর রহমান শেখ হাবিবুর রহমান, শাহিনুর রহমান, সরদার বিল্লাল হোসেন, আমিনুল ইসলাম বুলবুল প্রমুখ।