আগরদাড়ি মেম্বরের কুকীর্তি প্রকাশ হওয়ায় সাংবাদিক সেলিমের উপর হামলা


প্রকাশিত : মার্চ ৭, ২০১৭ ||

পত্রদূত ডেস্ক: সরকারি জমি দখল করে ঘর নির্মাণ, মাতৃভাতা, ৪০ দিনের কর্মসূচি, বয়স্কভাতা, ভিজিডি কার্ড, ১০ টাকার চালের কার্ড এবং গরীব দুস্থদের জন্য বরাদ্ধকৃত সরকারি পাকাঘর নিয়ে বারবার কেলেঙ্কাকারী ঘটনা সেই সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আগরদাড়ি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বর হাবিবুর রহমান ওরফে ছোট খোকনের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় স্বহস্তে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করেছেন এক সাংবাদিককে। আহত সাংবাদিক সেলিম হোসেন বর্তমানে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। সোমবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ওই মেম্বর হাবিবুর রহমান ওরফে ছোট খোকন ও তার বড় ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে বড় খোকন সহ তাদের দলবল নিয়ে সাংবাদিক সেলিম হোসেনের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।
জানা গেছে, ৬মার্চ সোমবার সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক কালের চিত্র পত্রিকায়, ‘ভাতার কার্ড, সরকারি ঘর ও কর্মসূচির কাজ দেয়ার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে অর্থ, সরকারি জমি দখলেও সিদ্ধহস্ত ইউপি সদস্য’ শিরোনামে, একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সংবাদে ইউপি মেম্বর হাবিবুর রহমানের কুকীর্তি তুলে ধরা হয়। সংবাদটি প্রকাশের পর সোমবার সকালে মেম্বর হাবিবুর রহমান সাংবাদিক সেলিম হোসেনকে খুজতে থাকে। এক পর্যায়ে কাশেমপুর জামে মসজিদের নিকট সাংবাদিক সেলিম হোসেনের উপর দলবল নিয়ে হামলা চালায় মেম্বর হাবিবুর রহমান ছোট খোকন।
সাংবাদিক সেলিম হোসেন জানান, ইতোপূর্বে ওই মেম্বর হাবিবুর রহমান সাংবাদিক সেলিম হোসেন খুন করার হুমকি দিলে সাতক্ষীরা সদর থানায় ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর ৪১৩জিডি হয়। এলাকাবাসী জানায়, মেম্বরের অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পায়না। কথা বললেই তালিকা থেকে নাম বাদ দেওয়া হয়। এলাকাবাসি আরোও জানায়, তার নেতৃত্বে কাশেমপুর, কদমতলা মোড়ে ২০১৩ সালে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ ও নৈরাজ্য নাশকতায় অংশ নেয় মেম্বর হাবিবুর রহমান। তার নেতৃত্বে গড়ে ওঠে ওই এলাকায় নাশকতাকারীদের অভয়ারন্য। গড়ে তোলে শক্তিশালী সিন্ডিকেট। আর সেই ইমেজকে কাজে লাগিয়ে মেম্বর হয়েছে হাবিবুর রহমান ওরফে ছোট খোকন। তাকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান এলাকাবাসি।