সদরের ঘোনার মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম বুকে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে মারা যান: ময়না তদন্ত বোড


প্রকাশিত : March 24, 2017 ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সদর উপজেলার ঘোনা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ বুকে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে ময়না তদন্তের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

 

চলতি মাসের ২ তারিখে ময়না তদন্ত বোর্ডের ৩জন চিকিৎসক ডা. ফরহাদ জামিল, ডা. কামরুল ইসলাম ও ডা. নাসির উদ্দীন গাজী কর্তৃক প্রদত্ত প্রতিবেদনে এই মন্তব্য করেছেন। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের সিভিল সার্জন গত ১২ মার্চ উক্ত প্রতিবেদনে সাক্ষর করলেও এখনো গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ওই প্রতিবেদন মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই কামাল হোসেনের নিকট আসেনি। চাঞ্চল্যকর এই মামলার ময়না তদন্তের প্রতিবেদন কেন তদন্তকারি কর্মকর্তার কাছে আসেনি সেটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নিহতের পুত্র মামলার বাদী আক্তারুল ইসলাম শিমুল।
এব্যাপারে তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই কামাল হোসেন রাতে দৈনিক পত্রদূত’কে সেল ফোনে উক্ত ময়না তদন্তের প্রতিবেদন না পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
উল্লেখ্য, গত ২৮ ফেব্রুয়ারী রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পাওনা টাকা চাওয়ায় ঘোনা বাজারে মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদকে পিটিয়ে আহত করে দেনাদাররা। ওই রাতে তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পুলিশ রাত থেকে পরদিন দুপুর পর্যন্ত ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘোনা গ্রামের মোমিনুল ইসলাম, ওয়াদুদ, মুন্না হোসেন ও মো. রনিকে গ্রেপ্তার করে।
এরপর নিহতের পুত্র আক্তারুল ইসলাম শিমুল বাদী হয়ে ৭জনকে আসামী করে সাতক্ষীরা সদর থানায় এজাহার দাখিল করেন। এমামলার এখন ৩ আসামীর টিকিটিও খুজে পাইনি পুলিশ।