তালার বোরো ধানের বাম্পার ফলন


প্রকাশিত : মে ১, ২০১৭ ||

মুজিবর রহমান, পাটকেলঘাটা: তালা উপজেলার বিলাঞ্চলের জমিতে এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।

বর্তমানে উপজেলার সর্বত্রই পড়েছে ধান কাটার ধুম। অথচ বন্যা কবলিত এই উপজেলার হাজার হাজার কৃষকের বছরের একটি মাত্র ইরি বোরো ফসলের আশাতীত ফলনের পর এবার কৃষকের মুখে ফুটে উঠেছে। কারণ চড়া মূল্যে ধান বিক্রি করতে পারায় তারা মহাখুশি। কারণ ধানের বাজার মূল্য বেশি পাওয়াতে কৃষক সমাজ খুশি। তবে ধানের দাম বেশি থাকাতে সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ রয়েছে দু:চিন্তায়। কারণ বছরের শুরুতেই যেভাবে ধান চালের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে তাতে সাধারণ মানুষের দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে। বিগত বছরের তুলনায় এবার মণ প্রতি ২শ থেকে ৩শত টাকা বেশি। গতবছর এ সময় কৃষক ধান ৬শ থেকে ৬৫০টাকায় বিক্রি করেছে। ধান উৎপাদনে কৃষক লোকসান ও ঋণের ভারী বোঝা মাথায় নিয়ে চাষাবাদ করে। অন্যদিকে কাল বৈশাখী ঝড়ের ভয়ে কৃষক রাতের ঘুম হারাম করে ধান সংগ্রহে সময় পার করছে। ধান কাটার এই ভরা মৌসুমে বরাবরের ন্যায় এবারও দেখা দিয়েছে দারুণ শ্রমিক সংকট। চড়া মূল্যেও মিলছে না শ্রমিক। তাই ছুটছেন নিজ জেলা থেকে অন্য জেলা উপজেলায়।

 

দিশেহারা অনেক পরিবারের নারী পুরুষ সবাই মিলে দিন রাত হাড় ভাঙ্গা পরিশ্রম করে ঘাম ঝরানো স্বপ্নে ফসল ঘরে তোলার প্রাণান্ত চেষ্টার দৃশ্য চোখে পড়ার মত। অপর দিকে এ অঞ্চলের উৎপাদিত ধানের অর্ধেকের বেশি ধান কাটা প্রায় শেষ। সরকারিভাবে ধান চাল সংগ্রহের খবর হলেও তা বাজারের দামের চেয়ে অনেক কম। এ বছর উপজেলায় বর্তমানে ২৮ জাতের প্রতিমণ চিকন ধান বিক্রি হচ্ছে ৯৫০ টাকা থেকে ৯৯০ টাকা দরে। এছাড়া হাইব্রিড ও জামাইবাবু সহ মোটা জাতের ধান বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৮ শত থেকে ৮২০ টাকা দরে বলে জানা যায়।

 

তালা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর তালা উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে প্রায় ১৬ হাজার ৬ শত হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান উৎপাদন হয়েছে। এবার আবহাওয়ার অনুকূল পরিবেশের কারণে ধানের ফলন ভালো হওয়ায় প্রতি বিঘা ৩৩ শতাংশ জমিতে ১৮-২২ মণ পর্যন্ত ধান উৎপাদন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলার যুগীপুকুরিয়া গ্রামে বসবাসকারি কৃষক আবুহোসেন জানান বর্তমানে ২৮ জাতের ধান বিঘা প্রতি ২২ থেকে ২৫ মণ পর্যন্ত ফলন হয়েছে। যার চাল শুরুতেই ৪৬-৪৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে সব মিলিয়ে কৃষি প্রধান এ দেশের সাধারণ কৃষক এবং ব্যবসায়ীদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।