শিক্ষাই পারে দেশকে দারিদ্রমুক্ত করতে: মৎস্য প্রতিমন্ত্রী


প্রকাশিত : মে ১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেছেন, শিক্ষাই পারে দেশকে দারিদ্রমুক্ত করতে। নতুন প্রজন্মেমের শিক্ষার্থীদের সঠিক শিক্ষা দিতে হবে। সরকার শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে।
তিনি রবিবার বিকেলে খুলনা ফুলতলার রাড়ীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন সিমানা প্রাচীরের উদ্বোধন ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে ৩৬ হাজারের বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয় করণ করে গেছেন। পরবর্তীতে বর্তমান সরকার ২৬ হাজার প্রাইমারী স্কুলকে সরকারি করণ করেছে এবং ভবিষ্যতে আরো এক হাজার পাঁচশত প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণের উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। শিক্ষা এখন সার্বজনীন হয়ে গেছে। এখন শিক্ষার মান আমাদের উন্নত করতে হবে। এজন্য অভিভাবক, শিক্ষক ও পরিচালনা পরিষদ সদস্যদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি বলেন, শিক্ষাসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী শিক্ষার বহুমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। নারীরা আজ কোন ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই। তারা অনেক দুর এগিয়ে গেছে।
ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আবুল বাশারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আশরাফ হোসেন আশু, সাধারণ সম্পাদক সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মৃণাল হাজরা, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্তকর্তা আছাদুজ্জামান মুন্সি এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা চায়না রানী দত্ত। স্বাগত বক্তৃতা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার আনোয়র হোসেন। পরে তিনি রাড়ীপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন এবং ফুলতলা রি-ইউনিয়ন স্কুল এন্ড কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। দুপুরে ডুমুরিয়ার খর্ণিয়া ইউনিয়নে পালপাড়ায় নামজ্ঞানুষ্ঠানে যোগদান করেন।
সকালে প্রতিমন্ত্রী বটিয়াঘাটার লিজখামার আল মা’হাদ আস সালাফী মাদ্রাসা পরিদর্শন করেন এবং ছাত্র ও শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় তিনি বলেন, ইসলাম শাšিতর ধর্ম। কোন ধর্মেই সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। ধর্মের নামে কোনো বিভেদ সৃষ্টি করতে দেওয়া হবে না। কওমি মাদ্রাসাকে স্বীকৃতি দিয়েছে সরকার। দেশকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। এজন্য প্রতিমন্ত্রী সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। মাদ্রাসারা পরিচালনা পরিষদের সভাপতি সরদার আব্দুল হামিদের সভাপতিত্বে অন্যান্যর মধ্যে বক্তৃতা করেন মাদ্রাসা কমিটির সদস্য খান মো. আবু বকর এবং শিক্ষক মো. মোস্তফা কামাল।