সদর এমপি রবি’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা এটা আট কলামের লীড নিউজ হতে পারে না


প্রকাশিত : মে ১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সদর আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’র বিরুেেদ্ধ আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন কার্যক্রমকে বাঁধাগ্রস্ত করতে কুচক্রী মহল তাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে  অপপ্রচারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

রোববার বিকালে সাতক্ষীরার সাধারণ জনতার আয়োজনে সাতক্ষীরা নিউ মার্কেটস্থ শহিদ আলাউদ্দিন চত্বরে সাতক্ষীরা জজকোর্টের এপিপি এড. তামিম আহমেদ সোহাগের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের সরদার। সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক সৈয়দ ফিরোজ কামাল শুভ্র, দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুন উর রশিদ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ডা. মুনসুর আহমেদ প্রমুখ।
এসময় বক্তারা বলেন, জামাত-বিএনপির প্রেতাত্মারা এমপি রবি’র রাজনৈতিক ভাবমূর্তি ও আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার জন্য আবার ও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং ০৪ মে ঢাকায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দল নিরসনে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় এমপিদের তলব করেছেন। এটাকে কেন্দ্র করে একটি চক্র রাজনৈতিক ইস্যু হিসেবে জামাত বিএনপির মদদদাতা দলের ভিতরে ঘাপটি মেরে থাকা একটি কুচক্রী মহল মীর মোস্তাক আহমেদ রবি এমপির সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। যা আগামী দিনে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে মারাত্মক আঘাত আনতে পারে। বক্তারা আরো বলেন, সাংবাদিক সম্মেলনের নামে একজন সুস্থ মানুষকে চা খাওয়ার দাওয়াত দিয়ে প্রেসক্লাবে ডেকে নিয়ে তার কাছ থেকে বিভিন্নভাবে ইনিয়ে বিনিয়ে শুনে যা করা হয়েছে তা সংবাদ সম্মেলন হতে পারেনা। চা চক্রের দাওয়াত দিয়ে তার কথা নিয়ে আজকে পত্রিকায় ৮ কলামে লিড নিউজ হয়ে গেল।

এই সংবাদ কোন দিন পত্রিকার লিড নিউজ হতে পারেনা। এটা সংবাদের কোন নিয়মে পড়েনা। সংসদ সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবিসহ যে সকল দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে এ ধরণের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে তাদের প্রতি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান বক্তারা। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ হায়দার আলী তোতা, জেলা শ্রমিকলীগ নেতা শেখ তহিদুর রহমান ডাবলু, জাতীয় পার্টি (মঞ্জু) কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মহসিন হোসেন বাবলু, জেলা পরিষদের সদস্য ওবায়দুর রহমান লাল্টু, জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম সম্পাদক এসএম রেজাউল ইসলাম, ফিংড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. লুৎফর রহমান, জেলা জাতীয় ৪ নেতা ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সভাপতি সৈয়দ জয়নাল আবদীন জোসি, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কাজী আক্তার হোসেন, জেলা তাঁতীলীগের সভাপতি মীর আজহার আলী শাহিন, সাধারণ সম্পাদক শেখ তৌহিদ হাসান, এড. বিডি জামান, মাহিন্দ্রা থ্রি হইলার চালকলীগের সভাপতি মাসুম বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মো. গাউস আলীসহ আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।