ঝাউডাঙ্গায় মরা গরু জবাই করার সময় পালিয়ে গেল কসাই ছালামত


প্রকাশিত : মে ৬, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রধিনিধি: জবাইয়ের উদ্দেশ্যে মরাগরু ট্রলিতে নিয়ে যাওয়ার সময় জনতা আটক করে এক কসাইকে। পরে মরা গরু ফেলে পালিয়ে যায় ওই কসাই। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে সদর উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ঝাউডাঙ্গা বাজারের ব্যবসায়ি আব্দুল গফফার শেখ, সেলিম হোসেনসহ কয়েকজন জানান, ঝাউডাঙ্গা বাজারের কসাই ছালামত আলি দীর্ঘদিন ধরে মরা ও অসুস্থ গরু বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রথমে তার বাড়িতে নিয়ে আসে। গভীর রাতে গোপনে ওই গরুর গোস্ত বাজারে নিয়ে আসে। পরে ওই গরুর গোস্ত  বিক্রি করে থাকে। বৃহস্পতিবার পাথরঘাটা গ্রামের অলিমা খাতুনের একটি গাভী  মারা যায়। ওই গরুটি একই গ্রামের কসাই ছালামত আলি ৪ হাজার টাকায় কিনে নেয়। গাভীটি রাত ১২টার দিকে মাঠে নিয়ে জবাই করার সময় জনতা তাকে আটক করে। শুক্রবার ওই গাভীর গোস্ত ঝাউডাঙ্গা বাজারের বিক্রি করা হতো। এ সময় কসাই ছালামত আলি, কলারোয়ার কসাই ইমাদুলসহ আরো দুই কসাই পালিয়ে যায়। ছালামত ও লারোয়ার ইমাদুল দীর্ঘদিন ধরে মরা ও অসুস্থ গরু কম দামে বিভিন্ন এলাকা থেকে গোপনে কিনে নিয়ে আসে। পরে গভীর রাতে মাঠে গরু জবাই করে ঝাউডাঙ্গা ও কলারোয়া বাজারে বিক্রি করে থাকে। সদর থানার এসআই অনুম কুমার জানান, তারা ঘটনাটি জানানার সাথে সাথে ঘটনাস্থালে যান। এ সময় কসাই পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে তাকে আটকের চেষ্টা চালানো হচেছ।