মুক্তিযোদ্ধা আকের আলীর সংবাদ সম্মেলন বড়দলের আইয়ুব সরদার রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতায় লিপ্ত


প্রকাশিত : মে ১১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. আকের আলী গাজী তার এলাকার হিজবুল্লাহর যুব সংঘের সভাপতি আইয়ূব সরদার, তার সহযোগী জামাত নেতা শামসুল গাজী ও রাজাকার পরিবারের ছেলে সুমন সানা প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটূক্তি করেন। এ বিষয়ে মো. নুরুজ্জামান মালী আশাশুনি থানায় মামলা দায়ের করেন এবং তাদের গ্রেফতারের দাবি জানান। একই সাথে বিচারের জন্য বড়দল ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধারা, ইউপি চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ যুবলীগ গত ১ মে তারিখে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। এ খবর পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এসে এক সংবাদ সম্মেলন করে আকের আলী গাজী, নুরুজ্জামান মালী ও মো. আব্দুল আজিজ এ তথ্য জানিয়ে বলেন, মানববন্ধনের পর আইয়ুব সরদার তার অপরাধ জগতকে আড়াল করতে ৩ মে তারিখে তার স্ত্রী শাহিনা খাতুনকে দিয়ে নিজ বাড়িতে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। সে খবরও সংবাদপত্রে পড়েন সবাই। এই সংবাদ সম্মেলনে আইয়ুব আলী সেদিনের মানববন্ধনকে জামাত শিবির ও জঙ্গিদের মানববন্ধন বলে উল্লেখ করে সত্যের অপলাপ করেছেন এবং মুক্তিযোদ্ধা ও সহযোগীদের সম্মান হানি করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে আকের আলী এসবের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, শাহিনা খাতুন প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি না করারও দাবি করেন। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, আইয়ুব সরদার এ এলাকায় সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকান্ড ছাড়াও সন্ত্রাসী ও নাশকতা কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা পুলিশের দালালি করে ও তাদের ছত্রছায়ায় থেকে জনগনের চোখ ফাকি দিয়ে মাদক ব্যবসা, বনদস্যুদের আশ্রয় প্রশ্রয় দেওয়া, কাঠ পাচারকারী, হরিণ শিকারী ও বাঘের চামড়া পাচারকারীদের সহায়তা করছে। আইয়ুব সরদার, শামসুল গাজী ও সুমন সানা সহ অন্যদের বাচানোর লক্ষ্যে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করেছেন বলে দাবি করেন। তিনি অবিলম্বে তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।