কলারোয়ার জয়নগরে দুটি পরিবার সরকারের দেওয়া বন্দোবস্তকৃত জমির দখল না পাবার অভিযোগে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : মে ১১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়া উপজেলার জয়নগর এলাকার ভূমিহীন ছিন্নমূল পরিবারের সদস্যরা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন ১৯৮৯ সালের ২৫ জুলাই তাদের দুটি পরিবারের নামে ৯১ শতক খাস জমি সরকার বন্দোবস্ত দিয়েছিলেন। এর মধ্যে সুবল দাস ও রুপবান দাসের পরিবারের ৪১ শতক জমির নামপত্তন হলেও ভগীরথ দাস ও তার স্ত্রী রানী দাসের ৫০ শতক জমির নামপত্তন এখনও হয়নি।
বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সুবল দাস ও ভগীরথ দাস এক সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানিয়েছেন। তারা বলেন, দীর্ঘদিন পার হলেও বন্দোবস্তকৃত জমির মধ্যে মাত্র ১৪ শতক জমির দখল পেলেও বাকি জমির দখল ও নামপত্তন করতে প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কাজ হচ্ছে না। এভাবে মাসের পর মাস ও বছরের পর বছর পার হয়ে যাওয়ায় এ দুটি পরিবারের ১৭ সদস্যের কেউ রাস্তায় টং ঘর বেধে আবার কেউ অন্যের জমিতে বাস করছেন। তারা অচিরেই জমির দখল এবং নামপত্তনের জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন।
এ প্রসঙ্গে তারা বলেন, বন্দোবস্তকৃত জমি থেকে তাদেরকে উৎখাতের লক্ষ্যে একটি মহল তৎপর রয়েছে। অপরদিকে স্থানীয় তহশিলদার খান রবিউল ইসলাম বন্দোবস্তকৃত রেজিস্ট্রি কবুলতি দলিলের নামপত্তন না করে এবং চেক দাখিলা না দিয়ে ভূমিহীনদের হাকিয়ে দিতে চান। এতে ভূমিহীনরা আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। এ ব্যাপারে তারা সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক, কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) সহ পুলিশ সুপার ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।